একমাস কোনও নতুন সংক্রমিতের খবর না পাওয়ার পরে সোমবারই ফের আক্রান্ত উহান শহরের ৫ বাসিন্দা। সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে বাস স্ট্যান্ডে অপেক্ষমান উহানবাসী। ছবি: এএফপি। (AFP)
একমাস কোনও নতুন সংক্রমিতের খবর না পাওয়ার পরে সোমবারই ফের আক্রান্ত উহান শহরের ৫ বাসিন্দা। সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে বাস স্ট্যান্ডে অপেক্ষমান উহানবাসী। ছবি: এএফপি। (AFP)

উহানে এবার দ্বিতীয় দফার করোনা ঝড়, দ্রুত জীবাণু ছড়াচ্ছে চিনের অন্য শহরেও

  • উত্তর পূর্ব চিনের জিলিন প্রদেশের শুলান শহরে ৬,৭০,০০০ অধিবাসীকে লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে।

Covid 19 এর আতুরঘর চিনের উহান শহরে দেখা দিল নতুন গোষ্ঠী সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় তারই সঙ্গে গোষ্ঠী সংক্রমণের খবর মিলেছে জিলিন প্রদেশ থেকেও।

সোমবার এর জেরে মারাত্মক জীবাণুর দ্বিতীয় দফা আক্রমণের আশঙ্কায় নতুন আতঙ্ক জেগেছে চিনে। 

এ দিন উহান শহর থেকে ৫টি নতুন সংক্রমণের খবর পাওয়া গিয়েছে। অথচ মাত্র একদিন আগেই জানা গিয়েছিল, এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ থেকে শহরে কোনও নতুন রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়নি। 

রবিবারের পর থকে উহানে মোট ৬ জন Covid-19 রোগীর খোঁজ মিলেছে, যাঁরা সকলেই উহানের ডংশিহু অঞ্চলের স্যানমিন এলাকার বাসিন্দা। এর জেরে ওই এলাকায় আপৎকালীন ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। প্রায় ৫,০০০ বাসিন্দাকে স্ক্রিনিংয়ের জন্য জন্য নিউক্লিইক অ্যাসিড টেস্ট করা হচ্ছে।

চিনের জাতীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, রবিবার মূল চিনা ভূখণ্ডে নতুন ১৭টি করোনা পজিটিভ রোগীর সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। তাঁদের মধ্যে ৭ জন ইনার মঙ্গোলিয়া অটোনমাস রিজিয়ন-এর অধিবাসী।

গত সপ্তাহশেষে স্থানীয় লন্ড্রি কর্মীর সংস্পর্শে এসে কমপক্ষে ১১ জন সংক্রমিত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। তার জেরে উত্তর পূর্ব চিনের জিলিন প্রদেশের শুলান শহরে ৬,৭০,০০০ অধিবাসীকে লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে। শহরের ২৯০টি পরিবারকে কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থায় রাখা হয়েছে।

সোমবারের হিসেব অনুযায়ী, এ পর্যন্ত চিনে মোট ৮৩,০০০ জন করোনা আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে। মারা গিয়েছেন ৪,৬৩৩ জন।  

 

বন্ধ করুন