HT বাংলা থেকে সেরা খবর পড়ার জন্য ‘অনুমতি’ বিকল্প বেছে নিন
বাংলা নিউজ > ছবিঘর > Central Govt plans on Tomato, Onion, Potato: আলু, পেঁয়াজ, টমেটোর দামের গ্রাফে আর 'ঝড়' উঠবে না, নয়া পরিকল্পনা কেন্দ্রের

Central Govt plans on Tomato, Onion, Potato: আলু, পেঁয়াজ, টমেটোর দামের গ্রাফে আর 'ঝড়' উঠবে না, নয়া পরিকল্পনা কেন্দ্রের

বিগত কয়েক বছরে বিভিন্ন সময়ে আলু, পেঁয়াজ এবং টমেটোর দামে ঝড় উঠেছে বাজারে। এর জেরে সমস্যায় পড়েছেন আম জনতা। আবার অনেক সময়ই এই পচনশীল পণ্যগুলির দাম পাইকারি বাজারে এতটাই তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে যে কৃষকরা কপাল চাপড়িয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে এবার একটি পাইলট প্রকল্পের ভাবনাচিন্তা করছে কেন্দ্রীয় সরকার।

1/5 আলু, পেঁয়াজ, টমেটোর মতো পচনশীল পণ্যের দামের ওঠা-নামা অনেকটাই নির্ভর করে পরিবরণ এবং মজুতের ওপর। এই আবহে কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রকের 'মার্কেট ইন্টারভেনশন স্কিম'-এর অধীনে পরীক্ষামূলক ভাবে 'লজিস্টিক' সমস্যা দূর করতে পদক্ষেপ করা হবে বলে দাবি করা হয়েছে মিন্টের রিপোর্টে। এই প্রকল্পটির নাম হবে 'অপারেশন গ্রিন'।  
2/5 সবুজ অভিযানের আওতায় খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ মন্ত্রক কৃষকদের আলু, পেঁয়াজ এবং টমেটো পরিবহণের ক্ষেত্রে আগে থেকে ৫০ শতাংশ ভর্তুকি প্রদান করবে বলে জানা গিয়েছে। এদিকে খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ মন্ত্রকের মেগা ফুডপার্ক স্কিমের দৌলতে এই ধরনের পচনশীল পণ্য মজুত রাখার সমস্যা অনেকটাই দূর হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তবে পণ্য পরিবহণের ক্ষেত্রে ভর্তুকির বিষয়টি নিয়ে কৃষকদের মনে দীর্ঘদিন ধরেই অসন্তোষ ছিল।  
3/5 যখন পাইকারি বাজারে দাম তলানিতে গিয়ে ঠেকে, তখন সেই পচনশীল পণ্য অন্যত্র নিয়ে গিয়ে বিক্রি করার জন্য কোনও প্রতিষ্ঠান বা সরকারি বিভাগ নেই। এই আবহে হয়ত নাসিকে যেখানে পেঁয়াজ ১ টাকা কিলোতে বিকোচ্ছে, তখন দিল্লিতে বা কলকাতাতে তা ৭০ টাকায় বিকোচ্ছে। তবে পরিবহণের সমস্যা দূর হলে কৃষক এবং গ্রাহক উভয়ই লাভবান হবেন বলে মনে করা হচ্ছে।  
4/5 এই বিষয়টি বাস্তবায়িত করতে কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যেই কৃষি মন্ত্রকের অধীনে একটি কমিটি গঠন করেছে। এই কমিটিকে একটি বাস্তবসম্মত পরিকল্পনার ছক কষার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই কমিটির একটি বৈঠক ইতিমধ্যেই হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে। কমিটির সুপারিশ সামনে এলে সেই মতো পরবর্তী পদক্ষেপ করা হতে পারে বলে জানা যাচ্ছে। উল্লেখ্য, আলু, পেঁয়াজ এবং টমেটোর মতো পচনশীল পণ্য প্রতিটি রান্নাঘরেই থাকে। তবে এই পণ্যগুলির ক্ষেত্রে সরকার কোনও ন্যূনতম দাম নির্ধারণ করে না। তাই কোনও বছর বাম্পার ফলন হলে পাইকারি বাজারে এর দাম কমে যায়।  
5/5 আবার কোনও বছর চাহিদা বেড়ে গেলে রকেট গতিতে ছুটতে শুরু করে দাম। এর আগে চলতি বছরে টমেটোর দামের গ্রাফে সুনামি এলে সরকার নিজেই পদক্ষেপ করে। যেখানে টমেটোর দাম কম, সেখান থেকে ফসল কিনে এনে তেমন জায়গায় বিক্রি করা হয়েছিল, যেখানে টমেটোর দর আকাশ ছুঁয়েছে। তবে সংগঠিত ভাবে আলু, পেঁয়াজ এবং টমেটোর সরবরাহ স্থিতিশীল রাখতে এবার তাই একটি স্থায়ী পরিকল্পনা চাইছে সরকার। আর সেই মতোই সবুজ অভিযানের ভাবনা।  

আরও ছবি