মনজ্যোত্ কালরা
মনজ্যোত্ কালরা

বয়স ভাঁড়ানোর অভিযোগে অনুর্ধ্ব উনিশ বিশ্বকাপের হিরো এক বছরের জন্য সাসপেন্ড!

ডিডিসিএ তাঁকে এক বছরের জন্য সাসপেন্ড করে দিয়েছে।

গত অনুর্ধ্ব উনিশ বিশ্বকাপের ফাইনালে সেঞ্চুরি করে নায়ক হয়েছিলেন দিল্লির মনজ্যোত কালরা। কিন্তু এবার বয়স ভাঁড়ানোর অভিযোগ উঠল তাঁর নামে। এর ফলে ডিডিসিএ অম্বুডসমান তাঁকে রঞ্জি ট্রফি থেকে এক বছরের জন্য সাসপেন্ড করেছে। অনুর্ধ্ব ১৬ ও অনুর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেটের ক্ষেত্রে কালরার বিরুদ্ধে বয়স গরমিল করার অভিযোগ উঠেছে।

একই অভিযোগে আপাতত অল্পের জন্য বেঁচে গিয়েছেন নীতিশ রানা। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ করার জন্য অতিরিক্ত কাগজপত্র আনা হচ্ছে। পেস বোলার শিবম মাভির বিরুদ্ধেও উঠেছে অভিযোগ। এখন তিনি উত্তরপ্রদেশের হয় রঞ্জিতে খেলেন। তাই তাঁর কেসটি বিসিসিআইয়ের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছে অম্বুডসমান।

অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি বদর দুরেজ আহমেদ অম্বুডসমান ছিলেন ডিডিসিএ-র। তাঁর কার্যকালের শেষদিনে কালরার বিরুদ্ধে রায় দেন তিনি। দুই বছর বয়সভিত্তিক ক্রিকেট ও একবছর রঞ্জি ট্রফি খেলতে পারবে না এই তরুণ ক্রিকেটার।

বর্তমানে অনুর্ধ্ব ২৩ ক্রিকেট ও রঞ্জি ট্রফি খেলছিলেন কালরা। কিন্তু আপাতত মাঠের বাইরে থাকতে হবে। তবে ডিডিসিএ সচিব বিনোদ তিহারা বলেছেন যে এই রায়টি কিছুটা অদ্ভুত, কারণ তথাকথিত ভাবে একই অপরাধ করা সত্ত্বেও নীতিশ রানা ক্রিকেট খেলবেন।

কিন্তু বয়স ভাঁড়ানোর অপরাধে কেন সিনিয়র ক্রিকেট খেলতে পারবেন না কালরা, সেটি নিয়েই প্রশ্ন সবার। কারণ সেখানে কোনও বয়সের নিষেধাজ্ঞা নেই। এমনকী ক্লাব ম্যাচও খেলতে পারছেন না কালরা। বিচারপতি দীপক ভার্মার নতুন অম্বুডসমানের কাছে এই বিষয়ে আপিল করতে হবে কালরার বাবা-মাকে।



বন্ধ করুন