বাংলা নিউজ > ময়দান > Sports Budget 2021: কোপ পড়ল খেলার বাজেটে, কাটতি ২৩০.৭৮ কোটি, খেলো ইন্ডিয়ায় কমল রেকর্ড বরাদ্দ
কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

Sports Budget 2021: কোপ পড়ল খেলার বাজেটে, কাটতি ২৩০.৭৮ কোটি, খেলো ইন্ডিয়ায় কমল রেকর্ড বরাদ্দ

  • বরাদ্দ বেড়েছে স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার।

শুভব্রত মুখার্জি

করোনার কারনে সারা বিশ্বের খেলাধুলার জগতে এক বিরুপ প্রভাব পড়েছে। এর মূল কারন অবশ্যই অর্থনৈতিক। বিশ্বের তাবড় তাবড় ক্লাব এখন ভুগছে অর্থ কষ্টে। স্থগিত হয়েছে বা বাতিল হয়ে গিয়েছে একাধিক প্রতিযোগিতা। এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে সোমবার করোনা পরবর্তীতে ভারতীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের পেশ করা বাজেটে খুব একটা ভালো খবর পেল না ক্রীড়াজগৎ। সামনেই রয়েছে অলিম্পিক আর তার আগেই বাজেটে বড়সড় কাটছাঁট করা হল ক্রীড়াক্ষেত্রের বরাদ্দ।

শেষ অর্থনৈতিক বর্ষে ভারতীয় ক্রীড়াক্ষেত্রে বরাদ্দ ছিল ২৮২৬.৯২ কোটি টাকা যা পরবর্তীতে করোনার কারনে কমিয়ে করা হয় ১৮০০.১৫ কোটি টাকা। ন্যাশনাল স্পোর্টস ডেভেলপমেন্ট ফান্ডও অর্ধেক করে করা হয় ২৫ কোটি টাকা। সোমবার ঘোষনা হওয়া বাজেটে কেন্দ্রের তরফে ক্রীড়াক্ষেত্রে বরাদ্দ করা হল ২৫৯৬.১৪ কোটি টাকা যা আগের তুলনায় ২৩০.৭৮ কোটি টাকা কম। তবে আগেরবারের রিভাইজড বাজেটের তুলনায় এই বছর কেন্দ্রীয় সরকার ৭৯৫.৯৯ কোটি টাকা বেশি বরাদ্দ করেছে। উল্লেখ্য, গত বছরে অলিম্পিক সহ একাধিক প্রতিযোগিতা স্থগিত হওয়া, ঘরোয়া প্রতিযোগিতা বাতিল হওয়া, বিদেশে ক্রীড়াবিদদের ট্রেনিং বাতিল হওয়ার কারনেই মূলত রিভাইজড বাজেট করে বরাদ্দ কমানো হয়েছিল।

তবে সবথেকে দুঃখের বিষয় কেন্দ্রীয় সরকারের ফ্ল্যাগশিপ প্রোজেক্ট 'খেলো ইন্ডিয়া'র বরাদ্দ এবার রেকর্ড কাটছাঁট করা হয়েছে। ২৩২.৭১ কোটি টাকা বরাদ্দ কমানো হয়েছে খেলো ইন্ডিয়ার ক্ষেত্রে। প্রসঙ্গত, শেষ বাজেটে যেখানে দেওয়া হয়েছিল ৮৯০.৪২ কোটি টাকা সেখানে এবার বরাদ্দ করা হয়েছে মাত্র ৬৫৭.৭১ কোটি টাকা।

তবে এতকিছুর মধ্যেও খুশির খবর বরাদ্দ বেড়েছে স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার। আগের বছরের ৫০০ কোটির তুলনায় এবার বাজেট বাড়িয়ে করা হয়েছে ৬৬০.৪১ কোটি টাকা। ন্যাশনাল স্পোর্টস ফেডারেশনের বাজেটও ৩৫ কোটি বাড়িয়ে করা হয়েছে ২৮০ কোটি টাকা। ক্রীড়াবিদদের ইন্সেন্টিভের ক্ষেত্রেও ৭০ কোটির বরাদ্দ কমিয়ে করা হয়েছে ৫৩ কোটি টাকা। ২০১০ সালে তৈরি কমনওয়েলথ সাই স্টেডিয়ার নবীকরনের কাজের বরাদ্দ ৭৫ কোটি থেকে কমিয়ে করা হয়েছে ৩০ কোটি টাকা। জম্মু কাশ্মীরের বুকে স্পোর্টস পরিকাঠামো উন্নয়নের বরাদ্দ এক রাখা হয়েছে ৫০ কোটিতেই। লক্ষ্মীবাই ইনস্টিটিউট অফ ফিজিক্যাল এডুকেশনের জন্য বরাদ্দ হয়েছে ৫৫ কোটি টাকা। ওয়াডার বরাদ্দ বাড়িয়ে ২ কোটি থেকে করা হয়েছে ২.৫ কোটি টাকা।

বন্ধ করুন