বাংলা নিউজ > ময়দান > দু'সেটে পিছিয়ে থাকার পরও রোলাঁ গারোর শেষ আটে জোকার, কোয়ার্টারে কোকো গফও
মুসেত্তির বিরুদ্ধে প্রথম দু'সেট পিছিয়ে ছিলেন জোকোভিচ। (REUTERS)
মুসেত্তির বিরুদ্ধে প্রথম দু'সেট পিছিয়ে ছিলেন জোকোভিচ। (REUTERS)

দু'সেটে পিছিয়ে থাকার পরও রোলাঁ গারোর শেষ আটে জোকার, কোয়ার্টারে কোকো গফও

  • জোকোভিচ এবং লরেঞ্জো মুসেত্তির শেষ ষোলোর লড়াইটা বড় অদ্ভূত রকমের ছিল। প্রথম দু'টি সেটে টাইব্রেকারে জোকারকে পিছনে ফেলে দিয়েছিলেন যে মুসেত্তি, তৃতীয় সেটে তিনিই রীতিমতো নাকানিচোবানি খেলেন।

সোমবার রোলাঁ গারোর মঞ্চে আরও একটা বড় অঘটন ঘটতেই পারত। মন ভাঙতে পারত  টেনিস প্রেমীদের। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পরিস্থিতি সামলে নেন বিশ্বের এক নম্বর তারকা নোভক জোকোভিচ। দু' সেটে পিছিয়ে থাকার পরও শেষ হাসি হাসেন জোকারই।

জোকোভিচ এবং লরেঞ্জো মুসেত্তির শেষ ষোলোর লড়াইটা বড় অদ্ভূত রকমের ছিল। প্রথম দু'টি সেটে টাইব্রেকারে জোকারকে পিছনে ফেলে দিয়েছিলেন যে মুসেত্তি, তৃতীয় সেটে তিনিই রীতিমতো নাকানিচোবানি খেলেন। দেখে যেন মনে হচ্ছিল, জোকোভিচ যেন খেলা শেখাতে নেমেছেন মুসেত্তিকে। 

ম্যাচের প্রথম দু'টি সেটের ফল মুসেত্তির পক্ষে ৭-৬ (৯-৭), ৭-৬ (৭-২)। মুসেত্তির কাছে এ রকম বাজে ভাবে পিছিয়ে পড়ে যেন ঘুম ভাঙে জোকারের। নিজের চেনা ছন্দে ফেরেন তিনি। নিজের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে তৃতীয় ও চতুর্থ সেট যথাক্রমে ৬-১ এবং ৬-০ সেটে ইতালির মুসেত্তিকে উড়িয়ে দেন। পঞ্চম সেটে যখন ৪-০ পিছিয়ে মুসেত্তি, সে সময় তাঁর পিঠে টান ধরায় অসম্ভব যন্ত্রণা শুরু হয়। প্রাথমিক চিকিৎসাতেও কোনও লাভ হয়নি। যে কারণে ওয়াকওভার দিতে বাধ্য হন মুসেত্তি। 

তবে ইতালির প্লেয়ারের চোট নিয়ে সমস্যা না থাকলে, রোলাঁ গারোয় যে এ দিন বড় অঘটন ঘটত না, এমনটা কিন্তু নিশ্চিত করে বলা কঠিন। কোয়ার্টার ফাইনালে সার্বিয়ার তারকা মুখোমুখি হবেন আরও এক ইতালিয়ানের। মাতেয়ো বেরেত্তিনির মুখোমুখি হবেন জোকার। প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে রজার ফেডেরারের মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল মাতেয়ো বেরেত্তিনির। কিন্তু ফেডেরার নাম তুলে নেওয়ায় ওয়াকওভার পেয়ে যান বেরেত্তিনি।

ফ্রেঞ্চ ওপেনের পুরুষ বিভাগের চতুর্থ রাউন্ডের অন্য ম্যাচে জাপানের কেই নিশিকোরি স্ট্রেট সেটে উড়িয়ে দেন জার্মানির আলেকজান্ডার জেরেভকে। খেলার ফল ৬-৪, ৬-১, ৬-১। আর্জেন্তিনার দিয়েগো সোয়ার্জম্যান ৭-৬, ৬-৪ ও ৭-৫-এ হারান জার্মানির ইয়ান লেনার্ড স্ট্রুফকে।  

মহিলাদের বিভাগে আবার কোয়ার্টার ফাইনালে সোফিয়া কেনিনকে ৬-১, ৬-৩ হারিয়েছেন মারিয়া সাকারি। আমেরিকার ১৭ বছরের কোকো গফও প্রত্যাশা মতো পৌঁছে গিয়েছেন শেষ আটে। কোকো গফ এখনই টেনিস দুনিয়ায় আলোড়ন ফেলে দিয়েছেন। তাঁকে ঘিরে প্রত্যাশাটাও অনেকটাই বেশি। সোমবার প্রি-কোয়ার্টারে তিনি ৬-৩, ৬-১ হারান ওনস জেবেয়ারকে।

বন্ধ করুন