বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > গোয়ার মতো শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে কুয়াদ্রাতের সিদ্ধান্তেই ভুবনেশ্বরে ম্যাচ- সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চাইলেন লাল-হলুদ কোচ

গোয়ার মতো শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে কুয়াদ্রাতের সিদ্ধান্তেই ভুবনেশ্বরে ম্যাচ- সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চাইলেন লাল-হলুদ কোচ

কার্লেস কুয়াদ্রাত।

দুর্গাপুজোর কারণে হোম ম্যাচ হলেও, কলকাতায় করা সম্ভব হয়নি সেই ম্যাচ। এই নিয়ে সমর্থকদের মধ্যে ক্ষোভ থাকলেও, কলকাতায় এই সময় প্রশাসনিক সমস্যা থাকায় শনিবারের ম্যাচ সরানো ছাড়া কোনও উপায় ছিল না। আর এই কারণে সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন ইস্টবেঙ্গলের স্প্যানিশ কোচ।

দুর্গাপুজো ঘিরেই এখন বাঙালির যত উচ্ছ্বাস, আবেগ, আহ্লাদ! বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসব বলে কথা! শনিবার মহাসপ্তমী। এর মাঝেই আইএসএলের ম্যাচ খেলতে নামছে ইস্টবেঙ্গল। তবে হোম ম্যাচ হলেও, দুর্গাপুজোর জন্য কলকাতার যুবভারতীতে হচ্ছে না। হচ্ছে ভুবনেশ্বরের কলিঙ্গ স্টেডিয়ামে। আর এই ম্যাচে লাল-হলুদের প্রতিপক্ষ শক্তিশালী এফসি গোয়া।

চলতি লিগে প্রথম দুই ম্যাচ জিতে আসা এফসি গোয়াকে নিয়ে বেশ সতর্ক লাল-হলুদের স্প্যানিশ কোচ কার্লেস কুয়াদ্রাত। তিনি স্বীকার করে নিয়েছেন, এই মুহূর্তে দক্ষতার শীর্ষে রয়েছে গোয়ার দলটি। গত মরশুম পর্যন্ত হায়দরাবাদের কোচ হিসেবে কাজ করা আর এক স্প্যানিশ কোচ মানোলো মার্কেজ এবার এফসি গোয়ার দায়িত্ব নিয়েছেন। তাঁর কোচিংয়েই ফুটছে পুরো টিম। সতর্ক কুয়াদ্রাত তাই বলেছেন, ‘এফসি গোয়া প্রথম দু'টি ম্যাচেই জিতে ছ’পয়েন্ট পেয়েছে। ওরা ওদের একশো শতাংশ দক্ষতা দিয়ে খেলছে। ডুরান্ড কাপে ওরা মোহনবাগানের কাছে হেরে সেমিফাইনাল থেকে ছিটকে গিয়েছিল রেফারির ভুল সিদ্ধান্তের শিকার হয়ে। ওরা ভবিষ্যতের জন্য একটা ভাল দল গড়ছে।’

তবে গোয়ার মতো শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে খেলার জন্য লাল-হলুদও যে প্রস্তুত, সেটা স্পষ্ট করে দিয়েছেন কুয়াদ্রাত। তাঁর দাবি, ‘বেঙ্গালুরুতে শেষ ম্যাচে আমরা যথেষ্ট ভালো খেলেছি। নিঃসন্দেহে আমরা সেই ম্যাচে ওদের চেয়ে ভালো খেলেছিলাম। তা সত্ত্বেও আমরা হারি, কিছু সিদ্ধান্ত আমাদের বিরুদ্ধে যাওয়ায়। তবে কোনও অজুহাত দেব না। সেই হার থেকে আমরা শিক্ষা নিয়েছি। প্রতি ম্যাচে আমাদের শুধু ভালো ফুটবল খেললে চলবে না, পয়েন্টও অর্জন করতে হবে। অনেক সুযোগ তৈরি করা বা প্রতিপক্ষকে কম সুযোগ দেওয়াই যথেষ্ট নয়। আমাদের প্রতিপক্ষকে শেষ করে দিতে হবে। আইএসএল-এর ওয়েবসাইটে সম্প্রতি প্রত্যাশিত গোলের যে পার্থক্যের তালিকা দেওয়া হয়েছে, সেই তালিকায় আমরা রয়েছি চার নম্বরে। আমার মনে হয় লিগ তালিকাতেও আমাদের এই জায়গাতেই থাকার কথা ছিল। প্রথম তিন ম্যাচ থেকে আমাদের ৬-৭ পয়েন্ট পাওয়ার কথা ছিল।’

আরও পড়ুন: ইস্টবেঙ্গলের বিতাড়িত কোচই চ্যালেঞ্জ নিয়ে পাকিস্তান ফুটবলে লিখলেন নতুন ইতিহাস

গত ৪ অক্টোবর বেঙ্গালুরুতে খেলে আসার পর ফের শনিবার গোয়ার বিরুদ্ধে খেলতে নামছে ইস্টবেঙ্গল। মাঝে লম্বা ছুটি ছিল। দু’সপ্তাহেরও বেশি বিশ্রাম পেয়েছেন লাল-হলুদের বেশির ভাগ ফুটবলারই। এই বিরতিতে নেরোকার বিরুদ্ধে একটি প্রস্তুতি ম্যাাচও খেলে। তবে সেই ম্যাচে ইস্টবেঙ্গল ২-৩ হেরে বসে থাকে। জর্ডন থেকে নবাগত ডিফেন্ডার হিজাজি মাহের সেই ম্যাচে প্রথম লাল-হলুদ জার্সি গায়ে মাঠে নামেন। দু'সপ্তাহের ছুটি প্রসঙ্গে কুয়াদ্রাত বলেন, ‘দীর্ঘ ছুটির সময় আমরা ভারতীয় দলে খেলা আমাদের তিন জন ফুটবলারকে পাইনি। ওরা তিন দিন আগে অনুশীলনে যোগ দিয়েছে। এই সময়ে আমরা হিজাজি (মাহের)-কে ফিট করে তুলেছি। নেরোকার বিরুদ্ধে আমরা একটা প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। এই ম্যাচে আমরা মোবাশির, ভিপি-র (সুহের) মতো সেই সব ফুটবলারকে খেলিয়েছি, যারা ম্যাচে কম সময় পেয়েছে। সময়টাকে কাজে লাগানোর চেষ্টা করেছি।’

আরও পড়ুন: চোট পেয়ে কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছাড়লেন নেইমার, ভাঙল ব্রাজিলের অপরাজিত থাকার রেকর্ড, ২-০ জিতে ৪০ বছর আগের নজির ছুঁল উরুগুয়ে

এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘লম্বা ছুটি থাকলে সেই সময়টাকে বিভিন্ন ভাবে কাজে লাগানো যায়। নতুন কৌশল পরখ করে দেখা যায়। ফুটবলারদের শারীরিক উন্নতি ঘটানো যায়। গোয়ার মতো শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে খেলতে হবে আমাদের। দীর্ঘ বিশ্রামের পর ছেলেরা আশা করি, এরকম একটা কঠিন ম্যাচে খেলার মতো শারীরিক জায়গায় থাকবে। তবে সারা মাসে এই একটাই ম্যাচ খেলছি আমরা, এটাই অদ্ভূত লাগছে। যদিও আমাদের নিজেদের কাজ করে যেতে হবে।’

দুর্গাপুজোর কারণে হোম ম্যাচ হলেও, কলকাতায় করা সম্ভব হয়নি সেই ম্যাচ। এই নিয়ে সমর্থকদের মধ্যে ক্ষোভ থাকলেও, কলকাতায় এই সময় প্রশাসনিক সমস্যা থাকায় শনিবারের ম্যাচ সরানো ছাড়া কোনও উপায় ছিল না। আর এই কারণে সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন ইস্টবেঙ্গলের স্প্যানিশ কোচ।

ভুবনেশ্বরে রওনা হওয়ার আগে কলকাতায় সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘সমর্থকদের জন্য আমার খুবই খারাপ লাগছে। এই ম্যাচটা ঘরের মাঠে খেলতে পারছি না আমরা। ঘরের মাঠে আমাদের প্রতিটি ম্যাচেই সমর্থকেরা বাড়তি শক্তি জোগায়। কিন্তু ক্লাবের ভালোর জন্যও তো আমাদের কিছু সিদ্ধান্ত নিতে হয়। ভুবনেশ্বরে খেলার সিদ্ধান্তটা আমার। কারণ, এই সিদ্ধান্ত না নিলে আমাদের এর পরে (ডিসেম্বরে) মুম্বই ও ওডিশা ম্যাচের মাঝখানে পড়ত ম্যাচটা। সেক্ষেত্রে ছ’দিনে তিনটে ম্যাচ খেলতে হত। সেক্ষেত্রে প্রথম ম্যাচে কোনও খেলোয়াড় চোট পেলে, তাকে হয়তো তিনটি ম্যাচেই পাওয়া যেত না। এটা তো কোনও সঠিক সমাধান নয়। সে জন্যই সমর্থকদের জন্য আমি দুঃখিত। আর একটা বিকল্প ছিল, শিলিগুড়ি। কিন্তু পুজোর জন্য সেটাও সম্ভব নয়। ভুবনেশ্বরে গিয়ে আমরা নিজেদের কাজটা ঠিকঠাক করার চেষ্টা করব।’

রোহিতদের প্রস্তুতির রোজনামচা, পাল্লা ভারি কোন দলের, ক্রিকেট বিশ্বকাপের বিস্তারিত কভারেজ, সঙ্গে প্রতিটি ম্যাচের লাইভ স্কোরকার্ড । দুই প্রধানের টাটকা খবর, ছেত্রীরা কী করল, মেসি থেকে মোরিনহো, ফুটবলের সব আপডেট পড়ুন এখানে।

ময়দান খবর
বন্ধ করুন

Latest News

আজও কান পাতলে শোনা যায় আর্তনাদ! সূর্য ডোবার পরে ভয়ের চোটে এখানে যান না কেউ ছেলেকে ‘লুকিয়ে’ই রাখেন নুসরত, প্রথমবার সামনে আনলেন ঈশানের এই বিশেষ কীর্তি রাতে হয়েছিলেন আটক, সকাল হতেই গ্রেফতার বেড়মজুরের তৃণমূল নেতা অজিত মাইতি IND vs ENG 4th Test LIVE: রাঁচি টেস্টের চতুর্থ দিনের লড়াই শুরু ভোডাফোন-আইডিয়ার ৩৩% শেয়ার কি ছেড়ে দেবে সরকার? সামনে এল সাফ বার্তা ঘরের মাঠে সব থেকে বেশি টেস্ট উইকেট নেওয়া ৬ স্পিনার, কুম্বলেকে টপকে দুইয়ে উঠলেন অশ্বিন খাবারে খরচ কমছে ভারতীয়দের, ব্যয় বাড়ছে পরিষেবা ও অন্যান্য সামগ্রী কিনতে: রিপোর্ট জোড়া জয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স, দেখে নিন WPL-এর পয়েন্ট তালিকা দমবন্ধ করবে শার্টলেস শাহরুখ! কিং খানের নতুন ছবি নিয়ে পড়ল হইচই, আপনি দেখেছেন সিংহের নাম নিয়ে HC-র বকুনি, বাংলার 'সীতা-আকবর' বিতর্কে সাসপেন্ড ত্রিপুরার অফিসার

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.