বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > দুর্গাপুরের মোহনবাগান অ্যাকাডেমিতে পুলিশ! ভাঙল ফলক, ঝুলল তালা
ভাঙা হচ্ছে দুর্গাপুরের মোহনবাগান অ্যাকাডেমির ফলক

দুর্গাপুরের মোহনবাগান অ্যাকাডেমিতে পুলিশ! ভাঙল ফলক, ঝুলল তালা

  • সেলের দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানা কর্তৃপক্ষের তরফে অ্যাকাডেমিতে তিনবার নোটিশ দেওয়া হয়েছে । অভিযোগ উঠেছে সেই নোটিশের জবাব দেয়নি মোহনবাগান কতৃপক্ষ।আর তারপরেই পরিস্থিতি এতটাই খারাপ হয়েছে যে পুলিশকে অ্যাকাডেমিতে পা রাখতে হল।

শুভব্রত মুখার্জি: বাংলার তিন প্রধানের মধ্যে মোহনবাগান অন্যতম প্রধান যারা দীর্ঘদিন ধরে অ্যাকাডেমি চালাচ্ছে দুর্গাপুরের বুকে। পাবলিক সেক্টরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কোম্পানি সেলের সাথে যৌথ উদ্যোগে তৈরি হওয়া এই অ্যাকাডেমির মধ্যে দিয়েই উঠে এসেছেন একাধিক তারকা ফুটবলার। এবার এই অ্যাকাডেমির আকাশেই বিতর্কের ছায়া। মোহনবাগান ক্লাবের সঙ্গে সেলের চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়েছে বেশ কিছুদিন। তার পরে সেলের দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানা কর্তৃপক্ষের তরফে অ্যাকাডেমিতে তিনবার নোটিশ দেওয়া হয়েছে । অভিযোগ উঠেছে সেই নোটিশের জবাব দেয়নি মোহনবাগান কতৃপক্ষ।আর তারপরেই পরিস্থিতি এতটাই খারাপ হয়েছে যে পুলিশকে অ্যাকাডেমিতে পা রাখতে হল। দুর্ভাগ্যের বিষয় দুর্গাপুরের মোহনবাগান ফুটবল অ্যাকাডেমিতে এখনও রয়েছে একাধিক ট্রফি সহ ফুটবল খেলার সরঞ্জাম।

দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলের এক বিশাল পুলিশ বাহিনী সপ্তাহের প্রথম দিনেই মোহনবাগান-সেল অ্যাকাডেমিতে এসে উপস্থিত হন। আপাতত অ্যাকাডেমিতে ঝুলিয়ে দেওয়া হল তালা। ভেঙে দেওয়া হয়েছে ফুটবল অ্যাকাডেমির ফলক। চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার ফলেই এমন আইনগত এবং প্রশাসনিক পদক্ষেপ পুলিলের পক্ষ থেকে করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।  

উল্লেখ্য ২০০২ সালে সেলের দুর্গাপুর স্টিল প্ল্যান্টের অধীনে থাকা টেগোর হাউসে শুরু হয়েছিল এই মোহনবাগান সেল ফুটবল অ্যাকাডেমি। আজ থেকে বছর দুয়েক আগে ২০১৯ সালের মার্চ মাস থেকে অ্যাকাডেমি বন্ধ হয়। ফের অ্যাকাডেমি শুরু করার চেষ্টা করা হলেও তা বিফলে যায়। ২০২০ সালের মার্চ মাসে বিশ্বজুড়ে করোনার প্রভাব পড়ে। প্রভাব পড়েছিল অ্যাকাডেমিতেও। ইস্পাত কারখানার টাউন সার্ভিস সিআইএসএফ ও দুর্গাপুর থানার পুলিশ বাহিনী একসাথে অভিযান চালিয়ে অ্যাকাডেমির দখল নিয়েছে।

বন্ধ করুন