বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > মঙ্গলবার CFL -এ SC ইস্টবেঙ্গলের প্রথম ম্যাচ! কী করবে লাল হলুদ ব্রিগেড?
লাল হলুদ সমর্থকদের উদ্দেশ্যে এসসি ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের বার্তা (ছবি:টুইটার)
লাল হলুদ সমর্থকদের উদ্দেশ্যে এসসি ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের বার্তা (ছবি:টুইটার)

মঙ্গলবার CFL -এ SC ইস্টবেঙ্গলের প্রথম ম্যাচ! কী করবে লাল হলুদ ব্রিগেড?

  • বিশেষজ্ঞমহল মনে করছেন, এই চিঠি অবশ্যই মঙ্গলবারের খেলা সম্পর্কিত। যেহেতু এখনও দল গঠন করে উঠতে পারেনি এসসি ইস্টবেঙ্গল সেই কারণে তারা হয়তো সময় চাইছেন। কারণ সাময়িক ভাবে জট কাটলেও লাল-হলুদে এখন দলগঠনের কাজ সম্পূর্ণ হয়নি।

চলতি মরশুমে মঙ্গলবারই কলকাতা লিগের অভিযান শুরু করার কথা SC ইস্টবেঙ্গলের। সেই দিন কল্যাণী স্টেডিয়ামে লাল-হলুদের প্রতিপক্ষ ভবানীপুর। কিন্তু কোথায় SC ইস্টবেঙ্গলের ফুটবলার?  কোথায় লাল হলুদের কোচ?  শেষ পর্যন্ত কী করবে SC ইস্টবেঙ্গল? আদৌ কী মঙ্গলবার কল্যাণীতে নামতে পারবে লাল হলুদ ব্রিগেড? ময়দানে এখন এই প্রশ্ন গুলোই ঘুরে বেড়াচ্ছে। তার মাঝেই আইএফএ তে এসে পৌঁছাল SC ইস্টবেঙ্গলের চিঠি। কী লেখা আছে তাতে? না, কেউ মুখ খোলেননি। আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন সোমবার দেখা হবে চিঠি, এখন কিছুই বলতে পারবনা। এ দিকে SC ইস্টবেঙ্গলের কর্তারাও মুখে তালা ঝুলিয়েছেন। কোনও পক্ষই কিছু বলতে চাইলেন না।

তবে বিশেষজ্ঞমহল মনে করছেন, এই চিঠি অবশ্যই মঙ্গলবারের খেলা সম্পর্কিত। যেহেতু এখনও দল গঠন করে উঠতে পারেনি এসসি ইস্টবেঙ্গল সেই কারণে তারা হয়তো সময় চাইছেন। কারণ সাময়িক ভাবে জট কাটলেও লাল-হলুদে এখন দলগঠনের কাজ সম্পূর্ণ হয়নি। আইএফএ-তে ফুটবলার রেজিস্ট্রেশন তো দূর, এসসি ইস্টবেঙ্গল এখনও দলই গড়ে তুলতে পারেনি। অনেকেই মনে করছেন হয়তো সেই কারণেই সময় চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছে এসসি ইস্টবেঙ্গল। তবে আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখোপাধ্যায় সাফ জানিয়ে দিলেন, ‘এসসি ইস্টবেঙ্গলকে আর কোনও অতিরিক্ত সময় দেওয়া যাবেনা। সূচি মেনেই খেলা হবে।’ 

শনিবার সকালে এসসি ইস্টবেঙ্গলের তরফ থেকে একটা চিঠি পাঠান হয় আইএফএ-তে। এসসি ইস্টবেঙ্গলের সিইও কর্নেল শিবাজী সমাদ্দার অবশ্য চিঠির বিষয় নিয়ে মুখ খুলতে চাইলেন না। শুধু বললেন, ‘কলকাতা লিগ প্রসঙ্গেই চিঠি দেওয়া হয়েছে।’ আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘ওরা হয়তো চিঠি পাঠিয়ে থাকতে পারে। দেখা হয়নি। সোমবার দেখব। তারপরই ওদের সেই মতো উত্তর দেব।’

এ দিকে দল গঠন নিয়েও কর্তা ও লগ্নিকারী সংস্থার কর্তাদের মধ্যে চাপানউতর চলছে। লাল-হলুদ কর্তাদের পক্ষ থেকে আগেই বলা হয়েছিল তাদের দায়িত্ব দিলে তারা ৫ দিনের ভিতরেই ফুটবল দল মাঠে নামিয়ে দেব। শোনা গিয়েছিল লগ্নিকারী সংস্থার পক্ষ থেকে ক্লাব কর্তাদের কাছে ফুটবলারের তালিকা চাওয়া হলে, ফুটবলারের সেই তালিকা বিনিয়োগকারীদের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছিলেন ক্লাব কর্তারা। এ দিকে ইনভেস্টরের পক্ষ থেকে বলা হয় ইস্টবেঙ্গল ক্লাব শুধু ফুটবলার লেনদেনের একটি ওয়েবসাইটের তথ্য পাঠিয়েছে। যেখানে নাকি কোন কোন ফুটবলার ফাঁকা আছে, তাদের তালিকা রয়েছে। এই সীমিত সময়ে, ওই বড় তালিকা ধরে সব ফুটবলারের এজেন্টকে ফোন করা সম্ভব নয়। এমন অবস্থায় এসসি ইস্টবেঙ্গল কী ভাবে মঙ্গলবার তাদের দল কলকাতা লিগের জন্য নামায় সেটাই দেখার।

চলতি মরশুমে মঙ্গলবারই কলকাতা লিগের অভিযান শুরু করার কথা SC ইস্টবেঙ্গলের। সেই দিন কল্যাণী স্টেডিয়ামে লাল-হলুদের প্রতিপক্ষ ভবানীপুর। কিন্তু কোথায় SC ইস্টবেঙ্গলের ফুটবলার?  কোথায় লাল হলুদের কোচ?  শেষ পর্যন্ত কী করবে SC ইস্টবেঙ্গল? আদৌ কী মঙ্গলবার কল্যাণীতে নামতে পারবে লাল হলুদ ব্রিগেড? ময়দানে এখন এই প্রশ্ন গুলোই ঘুরে বেড়াচ্ছে। তার মাঝেই আইএফএ তে এসে পৌঁছাল SC ইস্টবেঙ্গলের চিঠি। কী লেখা আছে তাতে? না, কেউ মুখ খোলেননি। আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন সোমবার দেখা হবে চিঠি, এখন কিছুই বলতে পারবনা। এ দিকে SC ইস্টবেঙ্গলের কর্তারাও মুখে তালা ঝুলিয়েছেন। কোনও পক্ষই কিছু বলতে চাইলেন না।

তবে বিশেষজ্ঞ মহল মনে করছেন, এই চিঠি অবশ্যই মঙ্গলবারের খেলা সম্পর্কিত। যেহেতু এখনও দল গঠন করে উঠতে পারেনি এসসি ইস্টবেঙ্গল সেই কারণে তারা হয়তো সময় চাইছেন। কারণ সাময়িক ভাবে জট কাটলেও লাল-হলুদে এখন দলগঠনের কাজ সম্পূর্ণ হয়নি। আইএফএ-তে ফুটবলার রেজিস্ট্রেশন তো দূর, এসসি ইস্টবেঙ্গল এখনও দলই গড়ে তুলতে পারেনি। অনেকেই মনে করছেন হয়তো সেই কারণেই সময় চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছে এসসি ইস্টবেঙ্গল। তবে আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখোপাধ্যায় সাফ জানিয়ে দিলেন, ‘এসসি ইস্টবেঙ্গলকে আর কোনও অতিরিক্ত সময় দেওয়া যাবেনা। সূচি মেনেই খেলা হবে।’ 

শনিবার সকালে এসসি ইস্টবেঙ্গলের তরফ থেকে একটা চিঠি পাঠান হয় আইএফএ-তে। এসসি ইস্টবেঙ্গলের সিইও কর্নেল শিবাজী সমাদ্দার অবশ্য চিঠির বিষয় নিয়ে মুখ খুলতে চাইলেন না। শুধু বললেন, ‘কলকাতা লিগ প্রসঙ্গেই চিঠি দেওয়া হয়েছে।’ আইএফএ সচিব জয়দীপ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘ওরা হয়তো চিঠি পাঠিয়ে থাকতে পারে। দেখা হয়নি। সোমবার দেখব। তারপরই ওদের সেই মতো উত্তর দেব।’

এ দিকে দল গঠন নিয়েও কর্তা ও লগ্নিকারী সংস্থার কর্তাদের মধ্যে চাপানউতর চলছে। লাল-হলুদ কর্তাদের পক্ষ থেকে আগেই বলা হয়েছিল তাদের দায়িত্ব দিলে তারা ৫ দিনের ভিতরেই ফুটবল দল মাঠে নামিয়ে দেব। শোনা গিয়েছিল লগ্নিকারী সংস্থার পক্ষ থেকে ক্লাব কর্তাদের কাছে ফুটবলারের তালিকা চাওয়া হলে, ফুটবলারের সেই তালিকা বিনিয়োগকারীদের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছিলেন ক্লাব কর্তারা। এ দিকে ইনভেস্টরের পক্ষ থেকে বলা হয় ইস্টবেঙ্গল ক্লাব শুধু ফুটবলার লেনদেনের একটি ওয়েবসাইটের তথ্য পাঠিয়েছে। যেখানে নাকি কোন কোন ফুটবলার ফাঁকা আছে, তাদের তালিকা রয়েছে। এই সীমিত সময়ে, ওই বড় তালিকা ধরে সব ফুটবলারের এজেন্টকে ফোন করা সম্ভব নয়। এমন অবস্থায় এসসি ইস্টবেঙ্গল কী ভাবে মঙ্গলবার তাদের দল কলকাতা লিগের জন্য নামায় সেটাই দেখার। |#+| 

বন্ধ করুন