বাংলা নিউজ > ময়দান > Road Safety World Series: বয়স কেবলই সংখ্যা! ৪৯-এর সচিনের শট উস্কে দিল দুই দশক আগের স্মৃতি- ভিডিয়ো
পুরনো ঝলক সচিনের ব্যাটে।

Road Safety World Series: বয়স কেবলই সংখ্যা! ৪৯-এর সচিনের শট উস্কে দিল দুই দশক আগের স্মৃতি- ভিডিয়ো

  • ১৫ বলে ১৬ রানের নিজের ছোট্ট ইনিংসে সচিন দুর্দান্ত ২টি চার হাঁকান। তার মধ্যে একটি ছিল ওভার-দ্য-টপ-শট। মন্ত্রমুগ্ধের মতো সেই শটেই যেন হারিয়ে গিয়েছিলেন সকলে। ১৯৯৬ সালের তরুণ সচিনের ঝলক যেন আরও এক বার ফিরে আসে।

ভারতের কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান সচিন তেন্ডুলকর হয়তো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন, কিন্তু আজও তাঁকে ঘিরে ভক্তদের উন্মাদনা কমেনি। অবসরের পরেও সচিন ক্রিকেট থেকে বিচ্ছিন্ন হননি এবং তিনি সুযোগ পেলেই প্রাক্তনদের বিভিন্ন সিরিজ খেলতে ২২ গজে নেমে পড়েন। এই যেমন রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজে সচিন নিয়ম করে প্রতি বছর অংশ নেন। সিরিজটি ভারতে আয়োজিত হচ্ছে। কানপুরের গ্রিন পার্ক স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম ম্যাচটি ছিল ইন্ডিয়া লিজেন্ডস বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা লিজেন্ডসদের মধ্যে। আর এই ম্যাচে ৪৯ বছরের সচিনের একটি শট উস্কে দিয়েছে ১৯৯৬ সালের একটি স্মৃতি।

এই টুর্নামেন্টে ভারতীয় কিংবদন্তি দলের অধিনায়ক সচিন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ম্যাচে অধিনায়ক সচিন টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন এবং দলের হয়ে তিনি ওপেন করতে নামেন। তবে তিনি যে ব্যাট হাতে প্রথম ম্যাচে দুরন্ত পারফরম্যান্স করেছেন, তা নয়। তবে তিনি কিন্তু এই ম্যাচে দর্শকদের নস্ট্যালজিক করে তুলেছেন। হয়তো তিনি ১৫ বলে মাত্র ১৬ রান করে আউট হয়ে গিয়েছেন। কিন্তু তিনি আউট হওয়ার পরেও তাঁর ভক্তরা দীর্ঘক্ষণ হাতড়ে বেরিয়েছেন ১৯৯৬ সালের স্মৃতি।

আরও পড়ুন: বিনি-ইউসুফের যুগলবন্দিতে বিরাট জয় ইন্ডিয়ার

আসলে নিজের এই ছোট্ট ইনিংসে সচিন দুর্দান্ত ২টি চার হাঁকান। তার মধ্যে একটি ছিল ওভার-দ্য-টপ-শট। মন্ত্রমুগ্ধের মতো সেই শটেই যেন হারিয়ে গিয়েছিলেন সকলে। ১৯৯৬ সালের তরুণ সচিনের ঝলক যেন আরও এক বার ফিরে আসে।

ভারতের ইনিংসের চতুর্থ ওভারে মাখায়া এনতিনিরলেংথ ডেলিভারিতে বাউন্ডারি হাঁকান তিনি। এক ওভার পরে, তিনি ফাস্ট বোলার জোহান ভ্যান ডের ওয়াথের বল লং-অফের দিকে বাউন্ডারির ​​বাইরে পাঠিয়েছিলেন।

পাওয়ারপ্লের পর ডেলিভারিতে নমন ওঝা আউট হওয়ার আগেই ১৫ বলে ১৬ রানে ইন্ডিয়া কিংবদন্তির অধিনায়ককে আউট করে দক্ষিণ আফ্রিকার তারকা এনতিনি। এর পর সুরেশ রায়না (২২ বলে ৩৩) এবং স্টুয়ার্ট বিনি (৪২ বলে ৮২) ৬৪ রানের পার্টনারশিপ গড়ে ভারতের পায়ের তলার জমি শক্ত করে। পরবর্তীতে ইউসুফ পাঠানের ১৫ বলে ৩৩ রানের সাহায্যে ভারত ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ২১৭ রান করে।

আরও পড়ুন: গ্রিনপার্কে প্রথম খেলবেন লারা, তাঁর আর সচিনের লড়াই দেখার টিকিটের চাহিদা তুঙ্গে

জবাবে ভারতীয় বোলারদের দাপটে দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তিরা ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৫৬ রান করতে পারে। রাহুল শর্মা ৩ উইকেট নেন। এবং মুনাফ প্যাটেল ও প্রজ্ঞান ওঝা ২টি করে উইকেট নিয়েছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক জন্টি রোডস অপরাজিত ২৭ বলে ৩৮ রান করে একাই লড়াই চালান। এ ছাড়া ওপেন করতে নেমে অ্যান্ড্রু পুটিক ২৪ বলে ২৩ এবং মরনে ভ্যান উইক ২৪ বলে ২৬ রান করেন। বাকিদের অবস্থা তথৈবচ। ম্যাচটি ভারত ৬১ রানে জিতে যায়।

বন্ধ করুন