বাংলা নিউজ > ময়দান > ভারতীয় পেসারদের দক্ষতা বিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের ভাবাচ্ছে : শামি
মহম্মদ শামি, জসপ্রীত বুমরাহ‌‌‌, ইশান্ত শর্মার সঙ্গে বিরাট কোহলি (ছবি: গুগল)
মহম্মদ শামি, জসপ্রীত বুমরাহ‌‌‌, ইশান্ত শর্মার সঙ্গে বিরাট কোহলি (ছবি: গুগল)

ভারতীয় পেসারদের দক্ষতা বিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের ভাবাচ্ছে : শামি

  • জসপ্রীত বুমরাহ‌‌‌, ইশান্ত শর্মা, নভদীপ সাইনি, মহম্মদ সিরাজ,উমেশ যাদব,শার্দুল ঠাকুর এবং অবশ্যই মহম্মদ শামি সম্বলিত বোলিং অ্যাটাক বিশ্বের যে কোন ব্যাটিং লাইন আপের কাছে বড় ত্রাস।

শুভব্রত মুখার্জি: ভারতীয় ক্রিকেটের বিশ্বমঞ্চে একটা সময় পরিচিতি ছিল মূলত তার ব্যাটিং এর মধ্যে দিয়ে। সেই সময় দু একজন বোলারদের বাদ দিয়ে বোলিং বিভাগ সেভাবে শক্তিশালী ছিল না। ফলে বিদেশের মাটিতে বিশেষত টেস্টে ভারতের পারফর্ম্যান্সও ততটা ভাল ছিল না। ধীরে ধীরে সেই অবস্থার পরিবর্তন ঘটেছে। এখন ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের বোলিং বিভাগ বা বলা ভাল পেস বোলিং বিভাগ যে কতটা শক্তিশালী তা হাতে নাতে টের পেয়েছে অজিরা। তাদের মাটিতে দাঁড়িয়ে কার্যত 'বি' টিম নিয়ে এক ঐতিহাসিক টেস্ট সিরিজ জিতেছিল রাহানে বাহিনী। 

সামনেই ভারতের বড় চ্যালেঞ্জ বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। যেখানে তাদের বিপক্ষ উইলিয়ামসন বাহিনী। এরপরেই জো রুটদের বিরুদ্ধে তাদের দেশেই পূর্নাঙ্গ সিরিজ খেলবে ভারত। এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে ভারতীয় জাতীয় ক্রিকেট দলের বোলিং বিভাগের অন্যতম স্তম্ভ মহম্মদ শামি। শামির মতে ভারতের পেস বোলিং অ্যাটাক এই মুহূর্তে এতটাই শক্তিশালী যে বিপক্ষ তাদের সমীহ না করার উপায় নেই। জসপ্রীত বুমরাহ‌‌‌, ইশান্ত শর্মা, নভদীপ সাইনি, মহম্মদ সিরাজ,উমেশ যাদব,শার্দুল ঠাকুর এবং অবশ্যই মহম্মদ শামি সম্বলিত বোলিং অ্যাটাক বিশ্বের যে কোন ব্যাটিং লাইন আপের কাছে বড় ত্রাস। 

বোলিং বিভাগ সম্বন্ধে বলতে গিয়ে মহম্মদ শামি জানালেন 'আমাদের বোলিং বিভাগের সবথেকে বড় শক্তি হল আমাদের এমন ৪-৫ জন পেসার আছে যারা দীর্ঘক্ষণ একনাগাড়ে ১৪০-১৪৫ কিমি বেগে বল করতে পারে। আপনি ১-২ জন পেতে পারেন তবে একসাথে ৪-৫ জন পাওয়াটা বিরাট ভাগ্যের বিষয়। এই বিষয়টা বিপক্ষ দলকে ভাবতে বাধ্য করেছে যে তারা আমাদের ঠিক কেমন উইকেট উপহার দিতে চায়। আমি মনে করিনা আমাদের একসাথে এতজন এত পেসে দীর্ঘক্ষণ বল করতে পারার ক্ষমতা সম্পন্ন বোলার আগে কোনদিন ছিল। ফলে আগে বিপক্ষ দল আমাদের বিরুদ্ধে খুব সহজেই তাদের কৌশল সাজিয়ে ফেলত। এখন কিন্তু সেটা হয় না। আমরা বিপক্ষকে অন্য রকমভাবে ভাবতে বাধ্য করেছি।'

বন্ধ করুন