বাংলা নিউজ > ভাগ্যলিপি > Kamika Ekadashi 2022: কামিকা একাদশীতে কী নিবেদন করবেন ভগবান বিষ্ণুকে? সব মনস্কামনা পূর্ণ হবে কীভাবে
কামিকা একাদশী কেন পালন করা হয়?

Kamika Ekadashi 2022: কামিকা একাদশীতে কী নিবেদন করবেন ভগবান বিষ্ণুকে? সব মনস্কামনা পূর্ণ হবে কীভাবে

  • Kamika Ekadashi Vrat Katha: কামিকা একাদশী ব্রত ২৪ জুলাই রবিবার। পবিত্র শ্রাবণ মাসের কৃষ্ণপক্ষে পতিত এই একাদশীতে শ্রীধর, হরি, বিষ্ণু, মাধব ও মধুসূদন প্রভৃতি নাম দিয়ে পূজা করতে হবে।

এটা বিশ্বাস করা হয় যে একাদশীর দিনে উপবাস পালন করে, বিভিন্ন অবতার ও রূপের ধ্যান করার সময় ভগবান বিষ্ণুর পূজা করা উচিত। একাদশী ভগবান বিষ্ণুর কাছে অত্যন্ত প্রিয়। যুধিষ্ঠির কৃষ্ণকে এই বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে তিনি নারদ ও ব্রহ্মাজীর কথোপকথন সম্পর্কে বলেছিলেন যে এই একাদশীর উপবাস পৃথিবী ও গোদানের সমান ফল দেয়। এই পূজায় তুলসীর আরাধনা করলে সারাজীবনের পাপ নাশ হয়, পাশাপাশি শ্রী হরির চরণে নিবেদন করলে মোক্ষও পাওয়া যায়।

একাশীতে তিল বা ঘি দিয়ে একটি প্রদীপ জ্বালাতে হবে, যা দিনরাত্রি জ্বালানো প্রয়োজন। পূর্বপুরুষরা এই উপবাসের মধ্যমে অমৃত সেবন করেন।

যারা কোনও কারণে একাদশীর উপবাস পালন করতে পারছেন না, তাদেরও একাদশীর দিন খাওয়া-দাওয়া ও আচরণে সম্পূর্ণ সংযম পালন করতে হবে। একাদশীতে ভাত খাওয়াও নিষেধ।

জনশ্রুতি আছে যে মহর্ষি মেধা মা শক্তির ক্রোধ থেকে বাঁচতে দেহ ত্যাগ করেছিলেন। তার অংশ মাটিতে মিশে যায়। মহর্ষি মেধা ধান ও যবের রূপে জন্মগ্রহণ করেন। তাই ধান ও যবকে জীব হিসেবে ধরা হয়। যেদিন মহর্ষির অংশ পৃথিবীতে প্রবেশ করেছিল, সেই দিনটি ছিল একাদশী তিথি। তাই এই দিনে ভাত খাওয়া উচিত নয়। যাই হোক, চালে জ্বলীয় পরিমাণ বেশি। জলে চন্দ্রের প্রভাব বেশি। ভাত খেলে শরীরে জলের পরিমাণ বেড়ে যায়, যার কারণে মন বিক্ষিপ্ত ও অস্থির হয়ে ওঠে। তারপর শ্রাবণ এর মত পবিত্র মাস, তাই যারা উপবাস করেন এবং যারা করেন না তাদের উভয়ই সম্ভব হলে ভাত ত্যাগ করুন।

 

বন্ধ করুন