বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Udayan Guha: ‘‌হাতে চুড়ি পরে বসে নেই’‌, শীতলকুচির ঘটনায় প্রতিবাদে হুঁশিয়ারি উদয়ন গুহের
উদয়ন গুহ (ফেসবুক)

Udayan Guha: ‘‌হাতে চুড়ি পরে বসে নেই’‌, শীতলকুচির ঘটনায় প্রতিবাদে হুঁশিয়ারি উদয়ন গুহের

  • মঙ্গলবার শীতলকুচিতে তৃণমূল কংগ্রেসের সভা থেকে বিজেপির উদ্দেশে কড়া হুঁশিয়ারি দিতে থাকেন উদয়ন গুহ। গত রবিবার শীতলকুচিতে বিজেপির মিছিলে হামলা হয়েছিল। বিজেপির দাবি ছিল এই হামলা নাকি তৃণমূল কংগ্রেস করেছে। তখন পাল্টা বিজেপির বিরুদ্ধে বোমাবাজির অভিযোগ তোলা হয় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থে হয়।

রবিবার কোচবিহারের শীতলকুচিতে বিজেপির মিছিল হয়েছিল। আর সেখানে ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। ‘‌চোর ধরো জেল ভরো‘‌ স্লোগান তুলেছিলেন বিজেপির নেতা–কর্মীরা। আর সেই মিছিলে হামলার অভিযোগ উঠেছিল। বিজেপির অভিযোগের তির ছিল তৃণমূল কংগ্রেসের দিকে। পাল্টা বিজেপির বিরুদ্ধে বোমাবাজির অভিযোগ তোলে তৃণমূল কংগ্রেসও। এবার বিজেপির উদ্দেশে কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী তথা দিনহাটার তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক উদয়ন গুহ।

ঠিক কী বলেছেন উদয়ন গুহ?‌ উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রীর এই মন্তব্য নিয়ে এখন জোর আলোড়ন পড়ে গিয়েছে। শীতলকুচির ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‌আমাদের ছেলেদের মারলে আমি চুপ করে বসে থাকব না। হাতে চুড়ি পরে বসে নেই। ওরা একটা মারলে, আমরা দুটো মারব। একথা যেন মনে রাখে।’‌ অর্থাৎ সরাসরি সংঘর্ষের কথা মন্ত্রীর মুখ থেকে শোনা যাওয়ায় চাপে পড়েছে বিজেপি।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ মঙ্গলবার শীতলকুচিতে তৃণমূল কংগ্রেসের সভা থেকে বিজেপির উদ্দেশে কড়া হুঁশিয়ারি দিতে থাকেন উদয়ন গুহ। গত রবিবার শীতলকুচিতে বিজেপির মিছিলে হামলা হয়েছিল। বিজেপির দাবি ছিল এই হামলা নাকি তৃণমূল কংগ্রেস করেছে। তখন পাল্টা বিজেপির বিরুদ্ধে বোমাবাজির অভিযোগ তোলা হয় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে। এই ঘটনার প্রতিবাদে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে শীতলকুচিতে প্রতিবাদ মিছিল করা হয়। সেখানেই হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

রবিবার কী বলেছিলেন দিনহাটার বিধায়ক?‌ অশান্তির কথা অস্বীকার করে সেদিন উদয়ন গুহ বলেছিলেন, ‘‌মালবাজারে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এসেছেন। আমরা সবাই এখানে রয়েছি। নেতারা যেখানে নেই, সেখানে তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা ঝামেলা পাকাবে!‌ এত বোকা নন আমাদের কর্মীরা। শীতলকুচিতে বিজেপির ১০০টি গোষ্ঠী। নিজেদের মধ্যে দ্বন্দ্বে নিজেরাই বোমাবাজি করেছে। এখন দোষ দিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেসকে।’‌

বন্ধ করুন