বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'তদন্ত করে দেখেছি, জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি', আতঙ্কের মাঝেই দাবি মমতার
মুখ্যম্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্যে এএনআই) (Utpal Sarkar)
মুখ্যম্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্যে এএনআই) (Utpal Sarkar)

'তদন্ত করে দেখেছি, জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি', আতঙ্কের মাঝেই দাবি মমতার

  • রাজনৈতিক চাপানউতোরের মধ্যে জ্বরের জেরে শিশুমৃত্যুর খবর অস্বীকার করলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

উত্তরবঙ্গ এবং পুরুলিয়ায় শিশুদের মধ্যে অজানা জ্বর নিয়ে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে ক্রমে। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এই রাজনৈতিক চাপানউতোরের মধ্যে জ্বরের জেরে শিশুমৃত্যুর খবর অস্বীকার করলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন পিজিতে রাজ্যের ৫ মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ সঙ্গে বৈঠক করে বেরিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মমতা শিশু মৃত্যু সংক্রান্ত সব দাবি ওড়ান। মমতার স্পষ্ট বক্তব্য, 'তদন্ত করে দেখেছি, যেই শিশুরা মারা গিয়েছে, তাদের অন্য রোগ ছিল। জ্বরে কোনও শিশুর মৃত্যু হয়নি।'

এদিকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজে আরও তিন শিশুর মৃত্যুর খবর মিলেছে এদিন। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে শুক্রবার স্বাস্থ্যভবন থেকে বিশেষ দল যাচ্ছে উত্তরবঙ্গে। এর আগে জলপাইগুড়ি হাসপাতালে তিন শিশুর মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছিল। তবে এই সব শিশু অজানা জ্বরে মারা যায়নি বলে দাবি করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে শুভেন্দু অধিকারী জানিয়েছেন, উত্তরবঙ্গে অজানা জ্বর নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি প্রায় 750 জন শিশু। তার মধ্যে ৬ জন শিশু মারা গিয়েছে। শুধুমাত্র মালদহ জেলাতেই ২০০-র বেশি শিশু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বলেও চিঠিতে উল্লেখ করেছেন শুভেন্দু। চিঠিতে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে ছাড়েননি তিনি। বিরোধী দলনেতার অভিযোগ, পশ্চিমবঙ্গ সরকার কোনওরকম গুরুত্ব দিচ্ছে না বিষয়টি নিয়ে। কারণ, সরকার ভবানীপুরের উপনির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত। তাই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের হস্তক্ষেপ এবং স্বাস্থ্য প্রতিনিধিদল পশ্চিমবঙ্গে পাঠানোর বিশেষ অনুরোধে করে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানসুখ মান্ডভিয়াকে চিঠি দিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

বন্ধ করুন