বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মিলল ছাড়! পুজোর দিনগুলিতে পানশালা-রেস্তোরাঁ খোলা রাখা যাবে বেশি রাত পর্যন্ত
পুজোর দিনগুলিতে পানশালা-রেস্তোরাঁ খোলা রাখা যাবে বেশি রাত পর্যন্ত, প্রতীকী ছবি: ব্লুমবার্গ (Bloomberg)
পুজোর দিনগুলিতে পানশালা-রেস্তোরাঁ খোলা রাখা যাবে বেশি রাত পর্যন্ত, প্রতীকী ছবি: ব্লুমবার্গ (Bloomberg)

মিলল ছাড়! পুজোর দিনগুলিতে পানশালা-রেস্তোরাঁ খোলা রাখা যাবে বেশি রাত পর্যন্ত

  • আজ থেকে আগামী ২০ অক্টোবর পর্যন্ত নাইট কার্ফু থাকবে না রাজ্যে।

করোনা বিধি আরও কিছুটা শিথিল করল রাজ্য সরকার। দুর্গাপুজোর সময় জনসাধারণের উল্লাসে খামতি যাতে না দেখা দেয়, সেই লক্ষ্যে নয়া নির্দেশিকা জারি করে রাজ্য জানিয়ে দিল, আজ থেকে আগামী ২০ অক্টোবর পর্যন্ত নাইট কার্ফু থাকবে না রাজ্যে। পাশাপাশি ১০ অক্টোবর থেকে ২০ অক্টোব বেশি রাত পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে রেস্তোরাঁ ও পানশালাগুলি। তাছাড়া দোকান খোলা রাখা সংক্রান্ত যাবতীয় বিধিনিষেধ তুলে নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, এতদিন রাত ১১ টা থেকে ভোর ৫ টা পর্যন্ত জারি থাকত নাইট কার্ফু। অর্থাত্, এই সময় শুধুমাত্র জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত থাকলেই বাড়ি থেকে বের হওয়ার নির্দেশ মিলত। আপাতত ২০ অক্টোবর পর্যন্ত সেই সংক্রান্ত আর কোনও বিধিনিষেধ রইল না।

এদিকে পুজোর সময় শহর কলকাতার একাধিক গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় কড়া নজরদারি চালাবে পুলিশ। যাতে কোনও প্রকারের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। তাছাড়া এলাকায় এলাকায় চালানো হচ্ছে নাকা চেকিং।

কোনও প্রকারের নাশকতামূলক কাজকর্ম যাতে না হয়, তার জন্য ইতিমধ্যেই ভিক্টোরিয়া, চিড়িয়াখানা, শহরের বড় বড় পুজো মণ্ডপ এলাকায় বিশেষ নজরদারি চালাচ্ছে কলকাতা পুলিশ। পাশাপাশি কোস্টগার্ড ও কলকাতা রিভার ট্রাফিক পুলিশকে বিশেষ ভাবে নজর দিতে বলা হয়েছে। লালবাজারে স্ট্যান্ডবাইতে রাখা হচ্ছে হেভিরেডিও ফ্লাইং স্কোয়াডকেও। পুজোর জন্য রাস্তায় থাকছেন ১৫ হাজার পুলিশকর্মী। থাকছেন ৪০০ ট্রাফিক পুলিশ এবং ৭০০ সাদা পোশাকের পুলিশকর্মী। লালবাজারের গোয়েন্দা বিভাগের গাড়িও টহল দেবে বিভিন্ন এলাকায়।

 

বন্ধ করুন