বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > গ্রামের লড়াই > Calcutta High court: ব্যালট পেপার রাস্তায় পড়ে! ভোটে স্বচ্ছতা কোথায়? কমিশনকে ভর্ৎসনা বিচারপতির

Calcutta High court: ব্যালট পেপার রাস্তায় পড়ে! ভোটে স্বচ্ছতা কোথায়? কমিশনকে ভর্ৎসনা বিচারপতির

বিচারপতি অমৃতা সিনহা।

গণনার দিন জঙ্গিপাড়ার ডিএনএ হাইস্কুলের পাশের রাস্তায় এক গুচ্ছ ব্যালট উদ্ধার হয়। সেই ব্যালট নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হন সিপিএম প্রার্থী। মামলায় বিডিও-কেও তলব করা হয়। বৃহস্পতিবার বিচারপতি সিনহার এজলাসে হাজির হন জাঙ্গিপাড়ার বিডিও।

রাস্তায় ব্যালট পেপার পড়ে থাকা নিয়ে মামলায় কমিশনকে ভর্ৎসনা করল আদালত। এই মামলা গ্রহণ করার যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন কমিশনের আইনজীবী। তার প্রেক্ষিতে আদালত কমিশনকে বিচারপতি বলেন, সে বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত নেবে আদালত। কিন্তু এত হিংসা হচ্ছে কেন? জানতে চান বিচারপতি অমৃতা সিনহা। তাঁর পর্যবেক্ষণ, তাহলে কি নির্বাচনে জেতাকে কেউ কেউ তাঁদের উপার্জনের মাধ্যম হিসাবে মনে করেছেন? সে কারণেই কি এত হানাহানি?

গণনার দিন জঙ্গিপাড়ার ডিএনএ হাইস্কুলের পাশের রাস্তায় এক গুচ্ছ ব্যালট উদ্ধার হয়। সেই ব্যালট নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হন সিপিএম প্রার্থী। মামলায় বিডিও-কেও তলব করা হয়। বৃহস্পতিবার বিচারপতি সিনহার এজলাসে হাজির হন জাঙ্গিপাড়ার বিডিও।

(পড়তে পারেন। TMC MLA-এর বিরুদ্ধে ব্যালট ছেনতাইয়ের অভিযোগ, সাঁকরাইলের ১৫সহ একাধিক বুথে ফের ভোট)

গণনা কেন্দ্রের বাইরে রাস্তায় এই ব্যালট পেপার পড়ে থাকা নিয়ে বিচারপতি প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ব্যালট পেপারগুলি তিনি প্রিসাইডিং অফিসারকে দিয়ে দিয়েছিলেন। তার পর আর তাঁর দায়িত্বে সেগুলি ছিল না। রাস্তা থেকে উদ্ধার হওয়া ব্যালট পেপারগুলিতে প্রিসাইডিং অফিসারের স্বাক্ষর ছিল। বিচারপতি সংশ্লিষ্ট প্রিসাইডিং অফিসারের নাম ও ঠিকানা লিখে দিয়ে যেতে বলেন। তাঁর প্রশ্ন, সই করা ব্যালট পেপারগুলি কী ভাবে বাইরে এল? কোন কারচুপি করা হয়নি তো?

মামলাকারী মহম্মদ শাহিন শেখের আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য আদালতে বলেন, ব্যালট পেপারগুলি ভুয়ো হতে পারে। ভুয়ো ব্যালটেই হয়তো ছাপ্পা ভোট পড়েছে।

শুনানিতে কমিশনের আইনজীবী কিশোর দত্ত বলেন, ভোট মিটে গিয়েছে। এখন তো নির্বাচনী পিটিশন দাখিল করা উচিত। কমিশনের আইনজীবীরকে মাঝপথে থামিয়ে দিয়ে  বিচারপতির প্রশ্ন, ‘একজন সাধারণ মানুষ হিসাবে বলুন, এখনও পর্যন্ত কটা নির্বাচনী পিটিশনের সুরাহা হয়েছে? পিটিশনের খরচ কে জোগাবে?’

ব্যালট পেপার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আপনাদের অফিসার বলছেন ব্যালট পেপার রাস্তায় পড়েছিল। সেগুলোতে প্রিসাইডিং অফিসারের সইও ছিল। তারপরও কেন কমিশন অস্বীকার করতে চাইছে ? আদালত অনেক ধৈর্য ধরেছে। ব্যালট পেপার রাস্তায় পড়ে! কোথায় নির্বাচনের স্বচ্ছতা?'

এই মামলায় বিচারপতি ২০ জুলাইয়ের মধ্যে রিটার্নিং অফিসারকে হলফনামা জমা দিতে বলা হয়েছে। গণনা কেন্দ্রে ভিতর ও বাইরের ফুটেজ চাওয়া হয়েছে। এই মামলার পরবর্তী শুনানি ২৪ জুলাই।

বন্ধ করুন