বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘বাবার সঙ্গে কাজ করা মানেই শেখার সুযোগ পাওয়া’, জানালেন সব্যসাচী পুত্র অর্জুন
অর্জুন চক্রবর্তী (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
অর্জুন চক্রবর্তী (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

‘বাবার সঙ্গে কাজ করা মানেই শেখার সুযোগ পাওয়া’, জানালেন সব্যসাচী পুত্র অর্জুন

জনপ্রিয় বাংলা ধারাবাহিক ‘গানের ওপারে’-তে প্রথম একফ্রেমে দেখা গিয়েছিল সব্যসাচী আর অর্জুনকে।

ইনস্টাগ্রামে নস্টালজিক পোস্ট অভিনেতা অর্জুন চক্রবর্তীর। বাবা সব্যসাচীর সঙ্গে ‘অভিযাত্রিক’ ছবির শ্যুটিং ফ্লোর থেকে তোলা একটি ছবি শেয়ার করে অর্জুন লিখেছেন, ‘বাবার সঙ্গে কাজ করা মানেই অনেক কিছু শেখার সুযোগ পাওয়া।’ এই প্রথম বড় পরদায় একফ্রেমে দেখা মিলবে বাবা-ছেলের। ‘অভিযাত্রিক’ তাঁর কাছে বড় কাছের— বহুবার নিজের দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন অর্জুন। শুক্রবার অভিনেতার ইনস্টা পোস্ট সেটাই আরও একবার প্রমাণ করল। 

জনপ্রিয় বাংলা ধারাবাহিক ‘গানের ওপারে’-তে প্রথম একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল সব্যসাচী আর অর্জুনকে। ওই ধারাবাহিক দিয়েই অভিনয়ে পা রেখেছিলেন অর্জুন। তাঁর অভিনীত গোরা চরিত্রটি ভালোবাসা পেয়েছিল আপামর বাঙালির। 

‘অভিযাত্রিক’ দিয়ে ৬০ বছর পর বড় পরদায় ফিরেছে অপু। ১৯৫৯ সালে ঠিক যেখানে ‘অপুর সংসার’ দিয়ে ‘অপু ট্রিলজি’ শেষ হয়েছিল, সেখান থেকে পরিচালক শুভ্রজিৎ মিত্র শুরু করেছেন ‘অভিযাত্রিক’। ছবিতে অপুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন অর্জুন চক্রবর্তী। অপুর স্ত্রী অপর্ণার চরিত্রে দিতিপ্রিয়া। এছাড়া অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়কে লীলা, শ্রীলেখা মিত্রকে রানুর চরিত্রে দেখা যাবে।

মুক্তির আগেই ‘অভিযাত্রিক’-এর মাথায় একগুচ্ছ জয়ের পালক। ২৬তম ‘কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’-এ ইতিমধ্যেই প্রশংসা কুড়িয়েছে ছবিটি। গোয়ায় ‘৫১তম আইএফএফআই’ তেও দেখানো হয়েছে ‘অভিযাত্রিক’। ছবি গিয়েছে আন্তর্জাতিক মঞ্চেও। ২৪তম সাংঘাই চলচিত্র উৎসব ও ৩৮তম মিয়ামি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে মনোনীত হয়েছে বাংলা ছবি ‘অভিযাত্রিক’। 

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে ‘বাপি বাড়ি যা’ দিয়ে বড় পরদায় পা রাখেন অর্জুন। হলিউডে জিম ক্যারি অভিনীত ‘ইটারনাল সানসাইন অফ আ স্পটলেস মাইন্ড’ ও ‘ট্রুম্যান শো’ থেকে অনুপ্রাণিত ‘লাভ আজ কাল পরশু’ ছবিতে মধুমিতা সরকারের সঙ্গে অর্জুনের রসায়ন মন কেড়েছে সিনেপ্রেমীদের। আপাতত বাঙালি দর্শক মুখিয়ে রয়েছেন তাঁদের প্রিয় অপুকে বড় পরদায় দেখতে। যদিও ছবি মুক্তির দিন এখনও ঠিক হয়নি।

বন্ধ করুন