বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Sabyasachi Chowdhury: ‘এভাবেই ফিরে আসা যায়’! টিভির পর্দায় ফিরছেন ক্যানসার জয়ী ঐন্দ্রিলা শর্মা
ঐন্দ্রিলা শর্মা ও সব্যসাচী চৌধুরী (ছবি ফেসবুক)

Sabyasachi Chowdhury: ‘এভাবেই ফিরে আসা যায়’! টিভির পর্দায় ফিরছেন ক্যানসার জয়ী ঐন্দ্রিলা শর্মা

  • ‘নিজের স্বপ্নপোড়া গন্ধ যতদিন তোমার নাকে লেগে থাকবে, জানবে তুমি অপ্রতিরোধ্য’, ঐন্দ্রিলার জন্য ফের কলম ধরলেন সব্যসাচী। 

অফুরান প্রাণশক্তি রয়েছে তাঁর ভিতরে। তাই তো মারণরোগ ক্যানসারের চোখে চোখ রেখে যুদ্ধ করতে অভ্যস্ত ‘জিয়ন কাঠি’র নায়িকা। গত বছর ফেব্রুয়ারিতে দ্বিতীয়বার ক্যানসার ধরা পড়েছিল টেলি অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মার শরীরে। তবে এখন তিনি সুস্থ। ক্যানসারকে হারিয়ে দিয়েছেন অভিনেত্রী। আর দীর্ঘসময় পর এবার টেলিভিশনের পর্দায় ফিরতে চলেছেন ঐন্দ্রিলা। সেই সুখবর অনুরাগীদের সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছেন ঐন্দ্রিলার মনের মানুষ সব্যসাচী চৌধুরী। 

না এখনই কোনও মেগা সিরিয়ালে কামব্যাক করছেন না ঐন্দ্রিলা। কিন্তু খুব শীঘ্রই জি বাংলার জনপ্রিয় শো ‘দিদি নম্বর ১’-এর মঞ্চে দেখা যাবে ঐন্দ্রিলাকে। মঙ্গলবার ‘দিদি নম্বর ১’-এর একটি এপিসোডের শ্যুটিং সারলেন ঐন্দ্রিলা। রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে প্রাণ খুলে নাচছেন ঐন্দ্রিলা, এমন একটি ক্যানডিড ছবির সঙ্গে গত বছর ১লা মার্চের একটি ছবি পোস্ট করেছেন ‘বামা’ সব্যসাচী। সেখানে দেখা যাচ্ছে হাসপাতালের বিছানায় চোখ বন্ধ করে শুয়ে আছেন ঐন্দ্রিলা। ওইদিনই কেমো থেরাপি শুরু হয়েছিল ঐন্দ্রিলার। 

এই ছবির কোলাজ শেয়ার করে সব্যসাচী লিখেছেন, 'প্রথম ছবিটি দিল্লির হাসপাতালে তোলা, কেমো শুরু হয় সেইদিন। ১ মার্চ, ২০২১।…দ্বিতীয় ছবিটি গতকালের। ১ মার্চ, ২০২২।

উপায় না থাকলে, হিমশীতল রাতে নিজের স্বপ্নগুলোকে ঝলসে তাপ পোয়াতে হয়। ভোরের আলো ফুটলে, ফের নতুন করে স্বপ্ন বুনতে হয়। নিজের স্বপ্নপোড়া গন্ধ যতদিন তোমার নাকে লেগে থাকবে, জানবে তুমি অপ্রতিরোধ্য। এভাবেই ফিরে আসা যায়।

সব্যসাচীর এই পোস্টে হৃদয়ের চিহ্ন আঁকছেন এই তারকা জুটির ভক্তরা। এমন সঙ্গী পেলে সত্যি সব মুশকিল আসান হয়ে যায়, বলছেন ফেসবুকের বাসিন্দরা। ঐন্দ্রিলা নিজেও আবেগপ্রবণ সব্যসাচীর এই পোস্ট দেখে। লিখেছেন, ‘এবার তো কাঁদিয়ে ছাড়বে’।

গত ডিসেম্বরেই ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমেই সব্যসাচী জানিয়েছিলেন ঐন্দ্রিলার ক্যানসার জয়ের কাহিনি। ২০২১-এর ফেব্রুয়ারিতে দ্বিতীয় বার ধরা পড়ে ক্যানসার ঐন্দ্রিলার শরীরে। তারপর হয় জটিল অস্ত্রোপচার, কেমোথেরাপি। আপাতত চিকিৎসার সময়সীমা শেষ। ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন ঐন্দ্রিলাও। ক্যানসার জয়ী ঐন্দ্রিলার এক মনেপ্রাণে ইচ্ছে অভিনয়ের জগতে ফেরা। আর সেই কামব্যাকের প্রথম ধাপ নিঃসন্দেহে দিদি নম্বর ১-এর মঞ্চ। ঐন্দ্রিলার এই লড়াইতেও সারাক্ষণ পাশে রয়েছেন সব্যসাচী।

বন্ধ করুন