বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সুপার ওভারে বিরাট বাহিনীর জয়ের পর হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন প্রেগন্যান্ট অনুষ্কা!
স্বস্তি ফিরল অনুষ্কার !
স্বস্তি ফিরল অনুষ্কার !

সুপার ওভারে বিরাট বাহিনীর জয়ের পর হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন প্রেগন্যান্ট অনুষ্কা!

  • 'একজন প্রেগন্যান্ট মহিলার জন্য মারাত্মক এক্সাইটিং একটা ম্যাচ', আরসিবি বনাম মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের টানটান উত্তেজনায় ভরা ম্যাচ শেষে মন্তব্য অনুষ্কার। 

সোমবার রাতে আইপিএল ২০২০-তে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর মুখোমুখি হয়েছিল রোহিত শর্মার মুম্বই ইন্ডিয়ানসের।করোনা পরিস্থিতিতে আয়োজিত এই টুর্নামেন্টে এক্সাইমেন্টের কোনও খামতি নেই।টুর্নামেন্ট সবে শুরু, তবে ইতিমধ্যেই দ্বিতীয়বার সুপার ওভারের মাধ্যমে সোমবার বিজেতা নির্বাচিত হল  আরসিবি। স্বভাবতই গোটা ম্যাচ জুড়ে বেশ খানিকটা টেনশনে ছিলেন বিরাট পত্নী, অনুষ্কা শর্মা। বিশেষত ব্যাট হাতে লাগাতার আইপিএলের তৃতীয় ম্যাচেও বিরাট কোহলির ব্যর্থতায় কিছুটা হলেও মন খারাপ ছিল অনুষ্কার। তবে এদিন সুপার ওভারের শেষ বলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে নিজের দলকে জয়সূচক রান এনে দিলেন বিরাট। এই জয়ের জন্য ঘরে বসেই বিরাটের জন্য গলা ফাটাতে ভুললেন না তাঁর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী অনুষ্কা শর্মা।

ইনস্টাগ্রামে এই ম্যাচ নিয়ে নিজের অনুভূতির কথা ব্যক্ত করেছেন বিরাট ঘরনি। ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে অনুষ্কা লেখেন- ‘উফ..বাপ রে! মারাত্মক এক্সাইটিং একটা ম্যাচ একজন প্রেগন্যান্ট মহিলার জন্য! কী মারত্মক একটা টিম এটা!’ ম্যাচ জয়ের পর উচ্ছ্বসিত আরসিবি দলের বেশ কয়েকটি ছবির কোলাজ নিজের পোস্টের সঙ্গে জুড়ে দেন অনুষ্কা।

অনুষ্কার ইনস্টাগ্রাম পোস্ট 
অনুষ্কার ইনস্টাগ্রাম পোস্ট 

এর আগে সানরাইজ হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে জয়ের পরেও বিরাট ও আরসিবিকে অভিনন্দন বার্তা দিয়েছিলেন অনুষ্কা। অগস্ট মাসেই বিরাট-অনুষ্কা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে অনুরাগীদের সঙ্গে সন্তানের আগমন বার্তা ভাগ করে নেন। পোস্টে লেখেন- ‘ আর এবার, আমরা দুই থেকে তিন হচ্ছি! সে আসছে ২০২১-এর জানুয়ারিতে’। সঙ্গে নিজের বেবি বাম্পের একটি ছবিও পোস্ট করেন অনুষ্কা। 

আপতত বিরাটের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতেই রয়েছেন বিরাট। অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে ছেড়ে এক মুহূর্ত থাকতে রাজি নন বিরাট কোহলি। গত সপ্তাহে পঞ্জাব বনাম আরসিবি ম্যাচে ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় বিরুষ্কাকে নিয়ে অশালীন মন্তব্যের অভিষোগ উঠছে গাভাসকরের বিরুদ্ধে। ব্যাট হাতে কোহলির ব্যর্থ হওয়ার জন্য লকডাউনের দীর্ঘ সময়ে পর্যাপ্ত অনুশীলনের অভাবকেই দায়ি করেন গাভাসকর। তিনি বলেন- '….লকডাউনে তো বিরাট কেবল অনুষ্কার বলে প্র্যাকটিস করেছে।’ উল্লেখ্য মে মাসে বাড়ির ছাদে একসঙ্গে ক্রিকেট খেলতে দেখা গিয়েছিল বিরাট-অনুষ্কাকে। 

যদিও বিষয়টি ভালোভাবে মেনে নেননি অনুষ্কা। ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে গাভাসকরের মন্তব্য নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে তিনি বলেন- ‘(আমি জানাতে চাই) যে, মিস্টার গাভাসকর আপনার মন্তব্য রুচিহীন, তা সত্যি। তবে আমি এটা ব্যাখ্যা করতে চাই যে আপনি কেন একজন স্ত্রীকে তাঁর স্বামীর খেলার জন্য দোষারোপ করে এরকম জঘন্য মন্তব্য করছেন? আমি নিশ্চিত যে বছরের পর বছর ধরে খেলার বিষয়ে মন্তব্য করার সময় আপনি প্রত্যেক ক্রিকেটারের ব্যক্তিগত জীবনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়েছেন'।

বন্ধ করুন