বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Tigers: রয়েল বেঙ্গল টাইগার ওপার বাংলা থেকে চলে আসছে এপারে, কিন্তু কেন? সত্যি কি
রয়েল বেঙ্গল টাইগার

Tigers: রয়েল বেঙ্গল টাইগার ওপার বাংলা থেকে চলে আসছে এপারে, কিন্তু কেন? সত্যি কি

  • Royal Bengal Tiger: সুন্দরবনের ভারতীয় অংশে বাড়ছে বাঘের সংখ্যা। আর বাংলাদেশে? দিন দিন সেটা কমছে। কেন? ওপার থেকে কি এপারে চলে আসছে বাঘেরা?

'সেভ টাইগার সেভ বেঙ্গল' নামক এক উদ্যোগ নেওয়া হয় বাঘ বাঁচানোর জন্য। কারণ একটা সময় অবধি ভারতের সুন্দরবনে লক্ষ্যনীয় হারে কমছিল রয়েল বেঙ্গল টাইগার। ফলে মনে মনে প্রমাদ গুনছিলেন প্রকৃতিপ্রেমীরা। আর এই উদ্যোগ নেওয়ার ফলে সুন্দরবনের যে অংশ ভারতে রয়েছে সেখানে বাড়ছে বাঘের সংখ্যা। এমনটাই দাবি করেছেন পশ্চিমবঙ্গের বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

সরকারের হিসেব অনুযায়ী ২০২১ সালের ডিসেম্বর অবধি সুন্দরবনের ভারতীয় অংশে মোট ৯৬টি রয়েল বেঙ্গল টাইগার ছিল। ২০২২ সালের গণনার ফল এখনও বেরোয়নি ঠিকই কিন্তু এই রাজ্যের বনমন্ত্রী জানিয়েছেন আগের তুলনায় বাঘের সংখ্যা বেড়েছে। এবার যত তথ্য এবং ছবি পাওয়া গিয়েছিল সেগুলো সব হায়দ্রাবাদে পাঠানো হয়েছে। চূড়ান্ত ফলাফল এখনও আসেনি। কিন্তু বাঘের সংখ্যা যে বেড়েছে সেটার ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে। জানা গিয়েছে অতিরিক্ত ২৭টি বাঘের খোঁজ মিলেছে। অর্থাৎ ভারতের সুন্দরবনে এখন মোট ১২৩টি রয়েল বেঙ্গল টাইগার রয়েছে।

এবারের সমীক্ষায় ভারতীয় সুন্দরবনে ৫টি নতুন দ্বীপের সন্ধান মিলেছে যেখানে বাঘের হদিস পাওয়া গিয়েছে। এই দ্বীপগুলোকে বাঘ সংরক্ষণের জন্য এলাকাভুক্ত করা হবে জানান বনমন্ত্রী।

অন্যদিকে বাংলাদেশের সুন্দরবন অঞ্চলে কমছে বাঘের সংখ্যা কিন্তু এই বৈপরীত্য কেন? পশ্চিমবঙ্গের বনদফতরের তরফে জানানো হয়েছে বাংলাদেশে বাঘের জন্য যথেষ্ট পরিমাণে খাবার নেই। তাই তারা এপারে চলে আসছে। অন্যদিকে রাজ্যের বন দফতরের তরফে সুন্দরবনের জঙ্গলে বাঘের জন্য যথেষ্ট পরিমাণে খাবার মজুত রাখা হয়েছে যাতে তারা লোকালয়ে না আসতে পারে। গভীর জঙ্গলে শূকর, হরিণ ছাড়া হয়ে থাকে নিয়মিত। তাই খাবারের লোভেই বাঘ ওপার থেকে এপারে আসছে, এমনটাই মনে করছে পশ্চিমবঙ্গের বন দফতর।

তবে বিশেষজ্ঞদের মত অন্য। তাঁদের মতে করোনার কারণে গত দুই বছর জঙ্গলে তেমন কোনও মানুষ যায়নি। ফলে বাঘেরা নিশ্চিন্তে সন্তান প্রসব করেছে। এবং সেই ছানাগুলো নিশ্চিন্তে বড় হয়েছে। প্রাপ্ত বয়স্ক বাঘের সংখ্যা ভারতীয় সুন্দরবনে বাড়ছে মানেই ওপার থেকে এপারে বাঘ আসছে এমনটা নয়।

একই মত পোষণ করেছেন সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত আধিকারিকরা। তাঁদের মতে এমন কোনও প্রমাণ নেই যেটা দেখে বলা যেতে পারে যে ওপার থেকে এপারে বাঘ চলে আসছে। তবে বাঘের সংখ্যা বেড়েছে এটা সঠিক। কিন্তু সেটা স্বাভাবিক নিয়মেই বেড়েছে।

আশুতোষ কলেজের প্রফেসর ডক্টর অরিজিৎ চট্টোপাধ্যায় জানান, ' বাঘের সংখ্যা কেন বাড়ছে সেটা বলা মুশকিলের ব্যাপার। দেখুন ভারতে কীভাবে বাঘের গণনা করা হয় সকলেই জানেন, কিন্তু বাংলাদেশেরটা স্পষ্ট নয়। আর সেখানে মোট কটা বাঘ আছে সেটাও খুব একটা স্পষ্ট নয়। ফলে একটা ধোঁয়াশা আছেই। তবে হ্যাঁ এটা বলা যায় যে ভারতে বাঘ গণনা করার যে প্রক্রিয়া ছিল তাতে পরিবর্তন আনা হয়েছে। এছাড়া দুই দেশের মধ্যে বাঘের নিত্য আনাগোনা লেগেই থাকে। কিন্তু যেটা বলার বিষয় সেটা হল, ভারত বাংলাদেশের তুলনায় অনেক বেশি সচেতন বাঘ সংরক্ষণের জন্য। এদেশে বেশি পরিমাণ অর্থ খরচ করা হয়, তাদের যথাযথ যত্ন নেওয়া হয়। জঙ্গলে তাদের জন্য যথেষ্ট পরিমাণে খাবার সরবরাহ করা হয়ে থাকে।'

বন্ধ করুন