মোট ১৪,৬০৮ জন পড়ুয়াকে স্মার্টফোন উপহার দেওয়ার ঘোষণা করল ত্রিপুরা সরকার।
মোট ১৪,৬০৮ জন পড়ুয়াকে স্মার্টফোন উপহার দেওয়ার ঘোষণা করল ত্রিপুরা সরকার।

প্রতিশ্রুতি পূরণ! কলেজ পড়ুয়াদের বিনামূল্যে স্মার্টফোন দিচ্ছে ত্রিপুরা সরকার

  • মুখ্যমন্ত্রী যুব যোগাযোগ যোজনা প্রকল্পে স্মার্টফোন কেনার জন্য প্রত্যেক পড়ুয়ার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ৫,০০০ টাকা জমা দেবে প্রশাসন।

সামনে বিধানসভা নির্বাচন। সে কথা মাথায় রেখে রাজ্যের স্নাতক স্তরে বিভিন্ন কোর্সে ভরতি হওয়া মোট ১৪,৬০৮ জন পড়ুয়াকে স্মার্টফোন উপহার দেওয়ার ঘোষণা করল ত্রিপুরা সরকার।

পড়ুয়াদের স্মার্টফোন দেওয়ার এই প্রতিশ্রুতি নিজেদের ২০১৮ সালের নির্বাচনী ইস্তেহার ‘ভিশন ডকুমেন্ট’-এ ফলাও করে প্রকাশ করেছিল বিজেপি।

মঙ্গলবার ত্রিপুরার শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়েছেন, ‘এ বছর ২২টি সরকারি কলেজ-সহ ৩৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ১৪,৬০৮ জন পড়ুয়া স্নাতক স্তরে ফাইনাল ইয়ারে পড়াশোনা করছেন। ক্ষমতায় আসার আগে তাঁদের যে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল, তা পালন করতে এবার ওই পড়ুয়াদের স্মার্টফোন উপহার দেবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। মুখ্যমন্ত্রী যুব যোগাযোগ যোজনা প্রকল্পে স্মার্টফোন কেনার জন্য প্রত্যেক পড়ুয়ার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ৫,০০০ টাকা জমা দেবে প্রশাসন।’

মন্ত্রী জানিয়েছেন, স্মার্টফোন কেনার পরে ফোনের রসিদ ও নিজস্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের সই-সহ বিস্তারিত তথ্য সরকারি ওয়েব পোর্টালে আপলোড করতে হবে পড়ুয়াদের।

ত্রিপুরা সরকারের এই প্রকল্পের সুবিধা পেতে গেলে শিক্ষার্থীদের অনলাইনে আবেদন জানাতে হবে। আবেদনপত্রে নিজের জন্ম তারিখ, আধার নম্বর, বাড়ির ঠিকানা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম ও ঠিকানা এবং ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের বিস্তচারিত তথ্য আপডেট করতে হবে। সমস্ত তথ্য যাচাই করার পরে সংশ্লিষ্ট পড়ুয়ার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরকারি প্রকল্পে অর্থ জমা পড়বে।

এ দিন শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘দক্ষতা বাড়াতে, জ্ঞানভাণ্ডার সমৃদ্ধ করতে এবং কর্ম সংস্থানের বিষয়ে খবর পেতে পড়ুয়াদের সাহায্য করবে স্মার্টফোন। এই প্রকল্পের মাধ্যেমে আমাদের রাজ্যের নবীনদের ডিজিটাল প্রশিক্ষণ উন্নত হবে।’

তিনি জানিয়েছেন, রাজ্য সরকারের এই প্রকল্পে খরচ হবে মোট ৭.৩০ কোটি টাকা। ২০২০-২১ অর্থবছরে শিক্ষার্থীদের এই এককালীন সুবিধা দেওয়া হচ্ছে।

বন্ধ করুন