বাংলা নিউজ > ময়দান > আর্শদীপকে কটুক্তি টিমবাসের সামনে, পরের ঘটনা দেখলে চমকে যাবেন
টিম বাসের সামনে ঝামেলা

আর্শদীপকে কটুক্তি টিমবাসের সামনে, পরের ঘটনা দেখলে চমকে যাবেন

  • একেবারে নিজের অপমান করাল গালাগালি দেওয়া যুবক। 

অনেক সময়ই প্লেয়ারদের ভক্তরা গালাগালি দেন এটা ভেবে যে তাদের এর জন্য কোনও শাস্তি পেতে হবে না। কিন্তু তাদেরকে যদি জিজ্ঞেস করা হয়, কেন এই সব কথা বলছেন অধিকাংশ সময়ই সেখানেই তাদের বাহাদুরির অন্ত হয়। ঠিক সেরকমই দেখা গেল ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা ম্যাচের শেষে দুবাই স্টেডিয়ামের বাইরে। 

ম্যাচের শেষে টিম তখন বেরিয়ে যাচ্ছে হোটেলের পথে। এক ভক্ত যে নিজেকে ভারতীয় বলে দাবি করেছিল, তাঁকে দেখা যাচ্ছে টিম বাসের সামনে। একেবারে শেষে যখন আর্শদীপ বাসে উঠতে যাচ্ছেন, তখন দেখা যায় ওই লোকটি গালাগালি করতে শুরু করে পঞ্জাবিতে পাকিস্তান ম্যাচে আর্শদীপের ক্যাচ ফেলার প্রসঙ্গ তুলে। আর্শদীপের কানেও এই কথা পৌঁছেছিল। তিনি এক মুহূর্তের জন্য থেমে গেলেও তারপর আর কথা না বাড়িয়ে বাসের ভিতরে ঢুকে যান। 

পুরো বিষয়টি সেখানে উপস্থিত থাকা সাংবাদিকদের ক্যামেরায় রেকর্ড হয়ে গিয়েছিল। এরপর সেই সাংবাদিকরাই সেই লোকটিকে প্রশ্ন করতে শুরু করেন। সাংবাদিক বিমল কুমার বলেন যে তুমি ভারতীয় হয়ে কীভাবে এই ভাবে কথা বলতে পারলে। চোখা প্রশ্নের সামনে রীতিমত চাপে পড়ে ভিজে বেড়াল হয়ে যায় সেই কটুক্তিকারী। সামনে একজন নিরাপত্তারক্ষী উপস্থিত ছিলেন, তাঁর কাছেও নালিশ ঠুকে দেয় সাংবাদিকরা। নিরাপত্তারক্ষী যদিও পরিস্থিতি শান্ত করে সেই লোকটিকে সেখান থেকে সরে যেতে বলে। পাকিস্তান ম্যাচে ক্যাচ ফেলার পর থেকে আর্শদীপ সিংকে অনলাইন তুমুল ট্রোল করা হচ্ছে। এমনকী কে বা কারা তার সঙ্গে খলিস্তানি যোগের ভুয়ো গল্প ফেঁদে উইকিপিডিয়ায় এডিট পর্যন্ত করে দিয়েছিল।

দেখুন সেই ভিডিয়ো- 

ভুবি পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা, দুদিনই ঝোলানোর জেরে আর্শদীপ সিংয়ের শেষ ওভারে তেমন কিছু করার ছিল না। তাও তিনি সাধ্যমতো বোলিং করে সবার মন জয় করে নিয়েছেন। মাত্র ২৩ বছর বয়সে কীভাবে কেউ অত শান্ত মাথায় নিঁখুত ইয়র্কার বলের পর বল করতে পারেন, সেটা অনেকের কাছেই প্রশ্ন। তবে যারা ক্রিকেটকে শুধু সাদা বা কালোয় দেখেন, তারা এখনও আর্শদীপ সিংয়ের ক্যাচ ফস্কানো নিয়ে পড়ে আছেন। তাদের মধ্যেই কেউ একটা কটুক্তি করেছিল সেটা হলফ করে বলাই যায়। 

বন্ধ করুন