বাংলা নিউজ > দেখতেই হবে > India And World > দ্বিতীয় দফা ভোটগ্রহণের পরই পশ্চিমবঙ্গে আছড়ে পড়তে পারে আরেকটা আমফান
বাঁ দিকে ঘূর্ণিঝড় টাউকটে-র অবস্থান। ডান দিকে কলকাতায় আমফানের ক্ষয়ক্ষতি।
বাঁ দিকে ঘূর্ণিঝড় টাউকটে-র অবস্থান। ডান দিকে কলকাতায় আমফানের ক্ষয়ক্ষতি।

দ্বিতীয় দফা ভোটগ্রহণের পরই পশ্চিমবঙ্গে আছড়ে পড়তে পারে আরেকটা আমফান

  • আবহবিদদের একাংশের মতে ঝড়টি আরও শক্তিশালী হতে পারে। কেন্দ্রে বাতাসের সর্বোচ্চ গতি হতে পারে ঘণ্টায় দেড়শো কিলোমিটার।

এপ্রিলের শুরুতে বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা। পূর্বাভাস অনুসারে ১ এপ্রিল তৈরি হতে পারে ঘূর্ণিঝড়টি। তবে সেটি কত শক্তিশালী হবে বা কোথায় গিয়ে আঘাত হানবে তা এখনই নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না আবহাওয়াবিদরা। ঘূর্ণিঝড়টি সৃষ্টি হলে তার নাম হবে ‘টাউকটে’।

পূর্বাভাস অনুসারে ২৯ মার্চ বঙ্গোপসাগরে তৈরি হবে একটি ঘূর্ণাবর্ত। তা ১ এপ্রিল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। ৩ - ৪ এপ্রিল আঘাত হানবে উপকূলে। মার্চের শেষে ততদিনে সাগরপৃষ্ঠের তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস পার করবে। যা ঘূর্ণিঝড় তৈরির জন্য আদর্শ। এছাড়া বাতাসে প্রচুর জলীয় বাস্প থাকায় ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টির অনুকূল পরিবেশ পাবে। 

প্রাথমিক ভাবে আবহবিদরা জানাচ্ছেন, ঝড়টির কেন্দ্রে বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ৬৫ – ৭৫ কিলোমিটার। গতিবেগ বৃদ্ধি পেয়ে ৮৫ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায় পৌঁছতে পারে। আবহবিদদের একাংশের মতে ঝড়টি আরও শক্তিশালী হতে পারে। কেন্দ্রে বাতাসের সর্বোচ্চ গতি হতে পারে ঘণ্টায় দেড়শো কিলোমিটার।

ঝড়টি কোথায় আঘাত হানতে পারে সেব্যাপারে নিশ্চিত পূর্বাভাস এখনো মেলেনি। তবে ওড়িশা থেকে মায়ানমারের মধ্যে কোথাও সেটি আছড়ে পড়তে পারে। ৩-৪ এপ্রিল পশ্চিমবঙ্গ উপকূলেও আঘাত হানতে পারে এই ঝড়। 

 

বন্ধ করুন