বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Tapati Guha Thakurta on Mamata: মমতা স্বীকৃতি চুরি করে নিচ্ছেন? মুখ্যমন্ত্রীর ‘অবদান’ নিয়ে মুখ খুললেন খোদ তপতী
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ফাইল ছবি, সৌজন্যে এএনআই) এবং তপতী গুহ ঠাকুরতা (ফাইল ছবি, সৌজন্যে Centre for Studies in Social Sciences Calcutta)। 

Tapati Guha Thakurta on Mamata: মমতা স্বীকৃতি চুরি করে নিচ্ছেন? মুখ্যমন্ত্রীর ‘অবদান’ নিয়ে মুখ খুললেন খোদ তপতী

  • গতকালই তপতী গুহ ঠাকুরতাকে সম্মান জানান পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দুর্গাপুজো যাতে ইউনেস্কোর হেরিটেজ তকমা পায়, সেজন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন তিনি।

স্বীকৃতি চুরির অভিযোগ উঠেছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে সেই গোটা বিতর্কে জল ঢাললেন তপতী গুহ ঠাকুরতা নিজে। গতকাল এই ‘স্বীকৃতি বিতর্ক’ নিয়ে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তপতী বলেন, ‘এটা আমার একার স্বীকৃতি বলা ভুল। অনেকেই এই কাজের সঙ্গে যুক্ত। এই স্বীকৃতি মুখ্যমন্ত্রী চুরি করে নিচ্ছে, এটা বলা আরও ভুল। মুখ্যমন্ত্রীর অবদান অন্য জায়গায়। আজকে হতে পারে, আমি যে কাজটা করেছিলাম, সেটা ওনাদের জানা ছিল না। সেটা এখন নানা কারণে তিনি জানতে পেরেছেন। এখন উনি জানেন যে এই কাজটা অনেকটাই আমরা করেছি।’

তপতী এদিন বলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়ায় যে এক ধরনের গল্প রচিত হয়েছিল, সেই গল্পের কোনও মানে হয় না। আমি এই ধরনের কোনও কথা বলিনি। আমার সম্মতিও ছিল না, এরকম একটা গল্প ছড়িয়ে পড়েছে। আমি এটাকে শুধুই রটনা বলব।’ প্রসঙ্গত, গতকালই তপতী গুহ ঠাকুরতাকে যোগ্য সম্মান জানালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দুর্গাপুজো যাতে ইউনেস্কোর হেরিটেজ তকমা পায়, সেজন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন তিনি। এই আবহে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছিল যে তপতীকে স্বীকৃতি না দিয়ে ফায়দা নিচ্ছেন মমতা। সেই অভিযোগকে উড়িয়ে দিলেন তপতী নিজে।

তপতী এদিন আরও বলেন, ‘কৃতিত্বের প্রশ্ন উঠবে কেন? যাঁরা প্যান্ডেল বাঁধার কাজ করেন, সেই কর্মী থেকে রাজ্য সরকার, কলকাতা পুলিশ, সকলেরই অবদান রয়েছে। সরকারের অবদান রয়েছে কারণ তারা পুরো বিষয়টিকে নিয়ন্ত্রণ করে আসছে। শিল্পীরাও বাংলার পুজোকে এই নান্দনিক জায়গায় নিয়ে এসেছেন।’ এদিকে গতকাল নিজের ভাষণের শুরুতেই প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় এবং অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনী তপতী গুহ ঠাকুরতাকে ধন্যবাদ জানান মমতা। তিনি বলেন, ‘আমি তপতীদেবীকে ধন্যবাদ জানাই। যিনি সোশ্যাল স্টাডিজে কাজ করেন এবং অনেক গবেষণা করে সাহায্য করেছেন, তাঁদের আমি ধন্যবাদ জানাই।’ পালটা হাসিমুখে ধন্যবাদ জানাতেও দেখা যায় কলকাতার সেন্টার ফর স্টাডিজ ইন সোশাল সায়েন্সেসের অধিকর্তা তপতী গুহ ঠাকুরতাকে।

বন্ধ করুন