বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > Gujarat CM Oath taking Ceremony: রেকর্ড জয়ের পর গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন মোদীর, ঘোষিত শপথগ্রহণের দিনক্ষণ

Gujarat CM Oath taking Ceremony: রেকর্ড জয়ের পর গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন মোদীর, ঘোষিত শপথগ্রহণের দিনক্ষণ

গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র প্যাটেল এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। (PTI)

গুজরাট বিজেপি প্রধান সিআর পাতিল এবং গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র প্যাটেলের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দুই জনকেই অভিনন্দন জানান মোদী।

গুজরাটে রেকর্ড জয় বিজেপির। এরপর রাজ্যের বিজেপি প্রধান এবং মুখ্যমন্ত্রী যৌথ সাংবাদিক সম্মেলন করেন। গুজরাট বিজেপি প্রধান সিআর পাতিল জানান, আগামী ১২ ডিসেম্বর সোমবার গান্ধীনগরে দ্বিতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথগ্রহণ করবেন ভূপেন্দ্র প্যাটেল। এদিকে সেই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে থাকবেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এদিকে গুজরাট বিজেপি প্রধান সিআর পাতিল এবং গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র প্যাটেলের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দুই জনকেই অভিনন্দন জানান মোদী।

১৯৮৫ সালে গুজরাটে মাধবসিংহ সোলাঙ্কির নেতৃত্বে কংগ্রেস ১৪৯টি আসনে জয় লাভ করেছিল। তবে এবার বিজেপি সেই রেকর্ডও ভেঙে দিতে চলেছে। ১৮২ আসন বিশিষ্ট গুজরাট বিধানসভায় জয়ের জন্য প্রয়োজন ৯২ আসন। গত নির্বাচনে বিজেপি পেয়েছিল মাত্র ৯৯টি আসন। তবে এবার বিজেপি ১৫০-রও বেশি আসনে এগিয়ে। দীর্ঘ ২৭ বছরে এত ভোট বা আসন পায়নি বিজেপি।

এতদিন পর্যন্ত গুজরাটে বিজেপি-র সর্বাধিক আসন সংখ্যা ছিল ১২৭। ২০০২ সালে গুজরাট দাঙ্গার ঠিক পরই অনুষ্ঠিত বিধানসভা নির্বাচনে ১২৭টি আসনে জিতে সরকার গড়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী। আজ বিজেপির সেই দলগত রেকর্ডও ভাঙল। এবারের নির্বাচনে গুজরাটে ২০-রও কম আসনে এগিয়ে কংগ্রেস। আম আদমি পার্টি ডবল ফিগার ছুঁতে পারেনি। এবারের নির্বাচনে বিজেপি-র প্রাপ্ত ভোট ৫৫ শতাংশ। কংগ্রেসের ভোট কমে গিয়ে হল ২৭ শতাংশ। আপ পেয়েছে ১৩.৩ শতাংশ ভোট। এদিকে বিগত ২৭ বছর ধরে বিজেপি সরকারে রয়েছে গুজরাটে। এই নির্বাচনে জয়ের ফলে গুজরাটে ৩২ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা নিশ্চিত করেছে বিজেপি। ভারতে একটানা ৩৪ বছর সরকার চালানোর রেকর্ড ছিল বাংলায় বামেদের। ২০২৭ সালের বিধানসভা নির্বাচনেও যদি বিজেপি জিততে পারে, তাহলে বাংলার রেকর্ড ভেঙে দিতে পারবে গুজরাট।

বন্ধ করুন