বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Aparajito: যেন সত্যজিতের হাতের কাজ, অপরাজিতর পোস্টারেও ‘রে স্মৃতি’ উসকে দিলেন অনীক
প্রকাশ্যে অপরাজিত ছবির প্রথম পোস্টার। 

Aparajito: যেন সত্যজিতের হাতের কাজ, অপরাজিতর পোস্টারেও ‘রে স্মৃতি’ উসকে দিলেন অনীক

  • সত্যজিতের স্মৃতি উসকে দিল ‘অপরাজিত’র মোশন পোস্টার। 

সত্যজিৎ রায় পরদায় ফিরছেন খুব শীঘ্রই। অনীক দত্ত পরিচালিত 'অপরাজিত' ছবির এক ঝলক প্রকাশিত হল মঙ্গলবার। কিংবদন্তি পরিচালকের জন্মশতবর্ষের শ্রদ্ধার্ঘ্য হিসেবে এই ছবি বানিয়েছেন অনীক। যাতে মানুষ সত্যিজিৎ রায়, ছবি বানানোর পিছনে সত্যজিতের যে লড়াই ছিল তা ফুটে উঠবে।

প্রযোজক ফিরদৌসল হাসান এবং তাঁর প্রযোজনা সংস্থা ফ্রেন্ডস কমিউনিকেশন এদিন যেন কড়া নাড়লেন দর্শকদের স্মৃতিতে। মাসকয়েক আগেই সত্যজিতের লুকে জিতু কমলকে দেখে চমকে উঠেছিল দর্শক। সেই বসা, সেই সিগারেট ধরার স্টাইল, সেই মুখ-- ভাষা হারিয়েছিল ‘রে-লাভার’রা।

সাদা-কালোর এই অ্যানিমেশনে হাওয়ায় দুলতে থাকা কাশবন, ট্রেন, নেপথ্য সংগীত মনে করায় সত্যজিৎকে। বাঙালির কাছে এ যে বড় নস্টালজিয়া। লেখা ফুটে উঠছে, ‘যাত্রা শুরু গনমাধ্যম এক্সপ্রেসে/ সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম থেকে’। সঙ্গে জিতুর অবয়বও ফুটে উঠল!

সম্ভবত মে মাসেই মুক্তি পাবে ‘অপরাজিত’। মোশন পোস্টার রিলিজের মাধ্যমেই যাত্রা শুরু হয়ে গেল ছবির। এবার চলবে প্রচারের কাজ। যদিও মুক্তির নির্দিষ্ট দিনক্ষণ এখনও অজানা।

প্রসঙ্গত, এই ছবির ব্যাপারে বিশেষ করে জিতুর লুক নিয়ে হিন্দুস্থান টাইমসের তরফে সন্দীপ রায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানিয়েছিলেন, 'ব্যাপারটা আমার আগে থেকেই জানা ছিল। অনীক কথা বলেছিল। এই নিয়ে বেশ আলোচনাও হয়েছিল। হ্যাঁ চোখে পড়েছে। ছবিগুলো তো ভালোই লেগেছে। আর এটা তো ঠিক তথাকথিত বায়োপিক নয় ওই 'মেঘে ঢাকা তারা' যেমন তৈরি করেছিলেন কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায় তেমন ধারাতেই তৈরি হবে 'অপরাজিত'। আর দেখুন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং-এর যুগে কথাবার্তা উঠবেই, সেসব বন্ধ করা যাবে না। বিশেষ করে বাঙালি এবং ছবিপ্রেমী মানুষের কাছে আজও সত্যজিৎ রায় নাম অত্যন্ত স্পর্শকাতর বিষয়। তবে আমার দৃঢ় বিশ্বাস অনেক ভেবেচিন্তেই অনীক এই কাজটি করছে। ভালোই করবে'।

বন্ধ করুন