বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > BJP নেতার গ্রেফতারি ঘিরে চরম নাটক, পঞ্জাব পুলিশের বিরুদ্ধে ‘অপহরণে’র অভিযোগে FIR দিল্লি পুলিশের!
হরিয়ানা পুলিশ পঞ্জাব পুলিশের গাড়ি আটকে দিয়েছে মাঝপথে।
হরিয়ানা পুলিশ পঞ্জাব পুলিশের গাড়ি আটকে দিয়েছে মাঝপথে।

BJP নেতার গ্রেফতারি ঘিরে চরম নাটক, পঞ্জাব পুলিশের বিরুদ্ধে ‘অপহরণে’র অভিযোগে FIR দিল্লি পুলিশের!

  • Tajinder Bagga Arrest: বিজেপি নেতা তজিন্দর পাল সিং বাগ্গার গ্রেফতারির ঘিরে তিন রাজ্যের পুলিশ জড়িয়ে পড়ল। পঞ্জাব পুলিশের বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিশ এফআইআর করেছে। এদিকে হরিয়ানা পুলিশ পঞ্জাব পুলিশের গাড়ি আটকে দিয়েছে মাঝপথে।

বিজেপি নেতা তজিন্দার পাল বাগ্গার গ্রেফতারি ঘিরে চরম নাটকীয় পরিস্থিতি তৈরি হল হরিয়ানায়। দিল্লি থেকে বিজেপি নেতাকে গ্রেফতরা করার ঘটনায় দিল্লি পুলিশের তরফে অপহরণের অভিযোগে এফআইআর করা হয়েছে পঞ্জাব পুলিশের বিরুদ্ধে। এদিকে যে গাড়ি করে তজিন্দরকে দিল্লি থেকে পঞ্জাবে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল, সেই গাড়িটি আটকিয়ে বিজেপি শাসিত হরিয়ানার পুলিশ।

এদিকে এই ঘটনা ঘিরে আম আদমি পার্টির সঙ্গে বিজেপির সংঘাত চরমে উঠেছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজেপি নেতারা অভিযোগ করেছে যে পঞ্জাব পুলিশ তজিন্দরের বাবাকে হেনস্থা করেছে। এদিকে পঞ্জাবের এক পুলিশ স্টেশনের বাইরে উপস্থিত হয়ে বিজেপি নেতা-কর্মীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এদিকে বিজেপি যুব মোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য টুইট করে বলেন, ‘তজিন্দরের মায়ের সঙ্গে কথা হয়েছে। আমি তাঁকে জানিয়েছি যে গোটা সংগঠন তজিন্দরের সঙ্গে আছে। তজিন্দরকে সুরক্ষিত ভাবে মুক্ত করার জন্য যুব মোর্চা নিজেদের স্বাধ্যের মধ্যে থাকা সবকিছু করবে। আমরা লড়াই করব। ভুল মানুষের সঙ্গে পাঙ্গা নিয়েছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল।’

এদিকে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দর কেজরিওয়ালের বাড়ির সামনে বিজেপি নেতা-কর্মীরা বিক্ষোভ অবস্থানে বসেছেন। এদিকে পঞ্জাব বিজেপি নেতা মনজিন্দর সিং সিরসা পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ভগবন্ত মানকে ট্যাগ করে টুইট বার্তায় লেখেন, ‘পঞ্জাবে গুন্ডা, মাফিয়ারা প্রকাশ্যে খুন করছে। মাদকের কারণে যুবকরা মারা যাচ্ছে এবং দিল্লিতে প্রতিশোধের রাজনীতিতে লিপ্ত হতে পাঞ্জাব পুলিশকে ব্যবহার করা হচ্ছে। শিখদের এভাবে অপমান করবেন না ভগবন্ত মান।’

এদিকে পঞ্জাব পুলিশ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তজিন্দর বাগ্গাকে গ্রেফতার করা হয়েছে কারণ তাঁর বিরুদ্ধে রাজ্যে দায়ের হওয়া মামলার তদন্তে যোগ দেননি তিনি। পঞ্জাব পুলিশ বলে, ‘অভিযুক্তকে (তজিন্দর বাগ্গা) তদন্তে যোগ দেওয়ার জন্য পাঁচটি নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। নোটিশ যথাযথভাবে পাঠানো হলেও অভিযুক্ত ইচ্ছাকৃতভাবে তদন্তে যোগ দেননি। তাই আজ সকালে আইনের যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে তজিন্দর পাল সিং বাগ্গাকে দিল্লিতে তাঁর বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছিল।’

বন্ধ করুন