বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Viral News: মেয়ের জন্য ৩৬ বছর পুরুষ সেজে থাকলেন মা! বিস্ময়কর কীর্তির নেপথ্যে কারণ কী?
তামিলনাড়ুতে মেয়ের জন্য ৩৬ বছর পুরুষ সেজে থাকলেন মা (ছবি - লাইভহিন্দুস্তান)

Viral News: মেয়ের জন্য ৩৬ বছর পুরুষ সেজে থাকলেন মা! বিস্ময়কর কীর্তির নেপথ্যে কারণ কী?

  • Tamil Nadu: এই মহিলা কাট্টুনায়কানপট্টি গ্রামের বাসিন্দা। তাঁর নাম পট্টিয়াম্মাল। বিয়ের ১৫ দিন পরই ওই মহিলার স্বামী শিব মারা যান। পট্টিয়াম্মাল তখন কুড়ি বছর বয়সি এবং তিনি পরে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন।

মাকে ঈশ্বরের মর্যাদা দেওয়া হয়। নিজের সন্তানের জন্য এমন অনেক বিস্ময়কর কীর্তি মা করতে পারেন, যা সাধারণ মানুষ কল্পনাও করতে পারবেন না। সম্প্রতি তামিলনাড়ুর এমনই একটি ঘটনা সামনে এসেছে। সেখানে একজন মহিলা তাঁর মেয়েকে বড় করার জন্য ৩৬ বছর ধরে পুরুষ সেজে ছিলেন। মহিলার স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে সাড়ে তিন দশেকরও বেশি সময় ধরে তিনি পুরুষ সেজেছিলেন৷ (আরও পড়ুন: সরকারি হাসপাতালের ICU-র এই হাল! জটিল রোগে প্যারালাইসিস রোগীর চোখে কামড় ইঁদুরের)

ঘটনাটি তামিলনাড়ুর থুথুকুডির। নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই মহিলা কাট্টুনায়কানপট্টি গ্রামের বাসিন্দা। তাঁর নাম পট্টিয়াম্মাল। বিয়ের ১৫ দিন পরই ওই মহিলার স্বামী শিব মারা যান। পট্টিয়াম্মাল তখন কুড়ি বছর বয়সি এবং তিনি পরে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। মেয়েকে লালন-পালনের ভার ছিল তাঁর একার কাঁধের ওপর। এর পর মহিলা এমন সিদ্ধান্ত নিলেন যা কেউ ভাবতেও পারেনি।

সম্প্রতি ওই মহিলা নিজেই জানিয়েছেন, গ্রামে কাজ করা তাঁর পক্ষে সহজ ছিল না। সেখানে লোকজন তাকে হয়রানি করত। তাঁর সন্তানকে বড় করার জন্য, তিনি নির্মাণ সাইট, হোটেল, চায়ের দোকান সহ অনেক জায়গায় কাজ করেছেন কিন্তু সর্বত্র হয়রানি ও কটূক্তির শিকার হয়েছেন। এরপর ওই মহিলা মন্দিরে চুল দান করেন এবং শাড়ির বদলে শার্ট ও লুঙ্গি পরতে শুরু করেন। শুধু তাই নয়, নিজের নাম পরিবর্তন করে মুত্থু রাখেন ওই মহিলা।

ওই মহিলা জানান, তাঁর নাম পরিবর্তনের পর শুধুমাত্র তাঁর ঘনিষ্ঠ আত্মীয় এবং মেয়ে জানতেন যে তিনি একজন নারী। এভাবে ছত্রিশ বছর কেটে যায়। মহিলা বলেছেন যে তিনি তাঁর মেয়ের লালন-পালন এবং সুরক্ষার জন্য এই কাজ করেছিলেন। বর্তমানে মহিলার এই জীবন কাহিনী ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। মহিলার কাহিনী জেনে সবাই হতবাক।

বন্ধ করুন