বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > IPL-এর জন্য ক্লার্কের সঙ্গে বন্ধুত্ব ভেঙেছে, ব্রেট লির সামনে সাইমন্ডসের অভিযোগ
মাইকেল ক্লার্ক ও অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস (ছবি-গেটি ইমেজ)

IPL-এর জন্য ক্লার্কের সঙ্গে বন্ধুত্ব ভেঙেছে, ব্রেট লির সামনে সাইমন্ডসের অভিযোগ

  • ২০১৫ সালে অলরাউন্ডার সাইমন্ডস দ্বারা ক্লার্ক ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়েছিলেন। এখন ‘দ্য ব্রেট লি পডকাস্ট’-এ, অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস তাঁর এবং ক্লার্কের সম্পর্ক নিয়ে কথা বলেছেন। প্রাক্তন অলরাউন্ডার বলেছেন যে আইপিএলের প্রথম মরশুমে প্রচুর পরিমাণ অর্থ পেয়েছিলেন সাইমন্ডস এবং সেটা মানেতে পারেননি ক্লার্ক। 

অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক এবং অজি অলরাউন্ডার অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস একসময় খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলেন। উভয় খেলোয়াড়ই একটা সময়ে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে মিডল অর্ডারে ব্যাট করতেন। তাঁরা একসঙ্গে অনেক দুর্দান্ত জুটি গড়েছেন এবং অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ম্যাচ জিতিয়েছেন। কিন্তু একটা সময়ে একদিকে সাইমন্ডসের ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যাচ্ছিল এবং ক্লার্কের মর্যাদা বাড়ছিল। তিনি অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হন এবং শীঘ্রই তাদের বন্ধুত্ব সম্পূর্ণরূপে শেষ হয়ে যায়।

২০১৫ সালে অলরাউন্ডার সাইমন্ডস দ্বারা ক্লার্ক ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়েছিলেন। এখন‘দ্য ব্রেট লি পডকাস্ট’-এ,অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস তাঁর এবং ক্লার্কের সম্পর্ক নিয়ে কথা বলেছেন। প্রাক্তন অলরাউন্ডার বলেছেন যে আইপিএলের প্রথম মরশুমে প্রচুর পরিমাণ অর্থ পেয়েছিলেন সাইমন্ডস এবং সেটা মানেতে পারেননি ক্লার্ক। সেকারণেই ক্লার্ক নাকি তাঁকে নিয়ে হিংসা করেছিলেন। সাইমন্ডস বলেন,‘ক্লার্ক যখন দলে এসেছিলেন আমি তার সাথে প্রচুর ব্যাট করতাম। তাই আমি তার সম্পূর্ণ যত্ন নিতাম। এটি আমাদের আরও কাছে নিয়ে এসেছিল। যখন আইপিএল শুরু হয়েছিল তখন আমি আইপিএলে খেলার জন্য প্রচুর অর্থ পেয়েছিলাম, ম্যাথু হেডেন আমাকে বলেছিলেন যে ক্লার্ক এতে ঈর্ষান্বিত হয়েছিলেন এবং এটি আমাদের সম্পর্কের মাঝখানে চলে এসেছিল।’

সাইমন্ডস আরও বলেন, ‘টাকা মজার সব জিনিস করে। এটি একটি ভাল জিনিস কিন্তু এটি বিষ হতে পারে এবং আমি মনে করি এটাই আমাদের সম্পর্ককে বিষাক্ত করেছে। আমি তাঁর সাথে আর বন্ধুত্ব রাখিনি এবং আমি এতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। তবে আমি এখানে বসে কাদা ছুঁড়তে চাই না।’আইপিএলের প্রথম আসরের নিলামে সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় ছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। একই সময়ে,বিস্ফোরক অলরাউন্ডার অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস ছিলেন দ্বিতীয় দামি খেলোয়াড়। হায়দরাবাদ ডেকান চার্জার্স তাকে ১.৩৫ মিলিয়ন ডলারে কিনেছেন।

বন্ধ করুন