বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > IPL 2022: 'রশিদ খান বেশি উইকেট পাওয়ার বোলার নয়', বিস্ফোরক মন্তব্য SRH-র ব্রায়ান লারার
সানরাইজার্স হায়দরাবাদের রশিদ খান এবং ব্রায়ান লারা। (ছবি সৌজন্যে আইপিএল)
সানরাইজার্স হায়দরাবাদের রশিদ খান এবং ব্রায়ান লারা। (ছবি সৌজন্যে আইপিএল)

IPL 2022: 'রশিদ খান বেশি উইকেট পাওয়ার বোলার নয়', বিস্ফোরক মন্তব্য SRH-র ব্রায়ান লারার

  • সানরাইজার্সেই রশিদ খানের আইপিএল (IPL 2022) জীবনের শুরু হয়। ২০১৭ সাল থেকেই সানরাইজার্সের মূল অস্ত্র ছিলেন। যে কোনও ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারেন রশিদ। তাঁর পরিসংখ্যানেও সেটাই ফুটে ওঠে। গত বছর পর্যন্ত সানরাইজার্সের জার্সিতে ৭৬ ইনিংসে ৯৩ টি উইকেট নিয়েছিলেন রশিদ। স্ট্রাইক রেট ১৯.৫। ইকোনমি রেট ৬.৩৩।

রশিদ খানের বিরুদ্ধে ঠুকঠুক করে খেলেন বিপক্ষের ব্যাটাররা। বেশি উইকেট পাওয়ার মতো বোলারই নন আফগানিস্তানের তারকা। এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ব্যাটিং কোচ ব্রায়ান লারা।

আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর (আরসিবি) ম্যাচের পর রশিদের বিষয়ে লারা বলেন, 'রশিদ খানকে আমি সম্মান করি। কিন্তু আমার বিশ্বাস যে আমাদের দলের সঠিক কম্বিনেশন আছে। রশিদ খানের বিরুদ্ধে বিপক্ষ দল ঠুকে ঠুকে খেলে। ও খুব একটা উইকেট তুলতে পারা বোলার নয়। (হ্যাঁ), প্রতি ওভারে ৫.৫ থেকে ছয় রান দেওয়া খুব ভালো বিষয়। কিন্তু আমাদের কাছে ওয়াশিংটন সুন্দরের মতো খেলোয়াড় আছে। যে প্রথম ছ'ওভারে বাঁ-হাতি ব্যাটারদের ক্ষেত্রে ভিতরের দিকে বল আনতে পারে। ও দলের সম্পদ। চোটের কারণে ওর পরিবর্ত হিসেবে সুচিথ এসেছে দলে। ও দলের কাছে সম্পদ।'

(IPL সংক্রান্ত যে কোনও আপডেট পড়ে নিন এখানে)

সানরাইজার্সেই রশিদের আইপিএল জীবনের শুরু হয়। ২০১৭ সাল থেকেই সানরাইজার্সের মূল অস্ত্র ছিলেন। যে কোনও ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারেন রশিদ। তাঁর পরিসংখ্যানেও সেটাই ফুটে ওঠে। গত বছর পর্যন্ত সানরাইজার্সের জার্সিতে ৭৬ ইনিংসে ৯৩ টি উইকেট নিয়েছিলেন রশিদ। স্ট্রাইক রেট ১৯.৫। ইকোনমি রেট ৬.৩৩। তা সত্ত্বেও এবার রশিদকে রিটেন করেনি সানরাইজার্স। সেই সিদ্ধান্ত নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছিলেন। যদিও সানরাইজার্স কর্তৃপক্ষের তরফে দাবি করা হয়, রশিদ নিজেই নিলামে যেতে চেয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: IPL 2022: জঘন্য ফর্মের বরুণদের জায়গায় KKR-কে শেষ চারে তুলতে পারেন এই অজানা নাইটরা! 

তারইমধ্যে গত সপ্তাহে লারা বলেন, ‘প্রতিটি ম্যাচেই আমরা চার পেসার নিয়ে খেলেছি। পিচের ধরন অবশ্যই পালটে যেতে পারে। ঘাস কমে যেতে পারে পিচে। আমাদের হাতে শ্রেয়স গোপালও আছে। ও এখনও একটি ম্যাচ খেলেনি। আইপিএলে ওর হ্যাটট্রিকও আছে। এখনও আমার মনে হয়, আমাদের হাতে প্রচুর বিকল্প আছে। আমি বেশি চিন্তিত নই।’

বন্ধ করুন