বাংলা নিউজ > ময়দান > Virat Kohli on Mental Health: ‘ঘর ভরতি ভালোবাসার মানুষের মধ্যেও নিজেকে একা মনে হত’, হতাশায় ডুবে ছিলেন বিরাট

Virat Kohli on Mental Health: ‘ঘর ভরতি ভালোবাসার মানুষের মধ্যেও নিজেকে একা মনে হত’, হতাশায় ডুবে ছিলেন বিরাট

বিরাট কোহলি। (ফাইল ছবি, সৌজন্যে রয়টার্স)

Virat Kohli on Mental Health: বিরাট কোহলির মতে, ফিটনেস তো ভালো করতেই হবে। কিন্তু জোর দিতে হবে মানসিক স্বাস্থ্যে। সেটা যদি নড়বড়ে হয়ে যায়, সবকিছু ভেঙে পড়বে। সেজন্য উদীয়মান অ্যাথলিটদের টিপসও দিয়েছেন বিরাট।

চারদিকে ঝলমল করছে আলো। কিন্তু ঠিক মাঝখানটা ঘুটঘুটে অন্ধকার। তুমুল সফল ক্রিকেটারদের জীবনেরও সেই অন্ধকার মুহূর্তটা অনেকে এড়িয়ে যান। তবে সেই অন্ধকার মুহূর্তটা অবহেলা করলে বিষয়টি মারাত্মক হতে পারে। সবকিছু ভেঙে পড়ার আশঙ্কাও আছে। তাই কোনওভাবে মানসিক দিকটা অবহেলা না করার পরামর্শ দিলেন বিরাট কোহলি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে একটি সাক্ষাৎকারে ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক তথা বিশ্বের ক্রীড়া জগতের অন্যতম ব্র্যান্ড বিরাট বলেন, ‘ভবিষ্যতের অ্যাথলিটদের আমি টিপস দিতে যাই। হ্যাঁ, ভালো অ্যাথলিট হওয়ার ক্ষেত্রে ফিটনেস এবং ফিট হয়ে ওঠার দিকে নজর দিতে হবে। তবে একইসময় নিজের ভিতরের মানুষটার সঙ্গেও লাগাতার যোগাযোগ রেখে যেতে হবে।’

আরও পড়ুন: Virat Kohli hints at Asia Cup return: 'যে কোনও কাজ করতে তৈরি…', এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপের দলে থাকার ইঙ্গিত বিরাটের

বিরাটের সেই অনুভূতিটা একেবারে নিজের মধ্যে থেকেই এসেছেন। ‘কিং কোহলির’ কথায়, 'ব্যক্তিগতভাবে আমি এই অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছি। যখন ঘর ভরতি মানুষের মধ্যে নিজেকে একা মনে হত। যে মানুষরা আমার হয়ে গলা ফাটান এবং ভালোবাসেন, (তাঁদের মধ্যে থেকেও এরকম মনে হত)। আমি নিশ্চিত যে অনেকেই এই বিষয়ে মিল খুঁজে পাবেন। তাই নিজের জন্য সময় বের কর এবং নিজের ভিতরের মানুষটার সঙ্গে ফের সংযোগ গড়ে তোল। তুমি যদি সেই সংযোগটা হারিয়ে ফেল, তাহলে তোমার আশপাশের জিনিসপত্র ভেঙে পড়তে বেশি সময় লাগবে না।'

আরও পড়ুন: Virat Kohli: লিডসে এমন ব্যাটিং! বিশ্বাস করতে পারছেন না কেভিন পিটারসেন, বিরাটদের পারফরমেন্সে কী বললেন প্রাক্তনরা

আরও পড়ুন: Ind vs Eng: 'ওকে, থ্যাঙ্কস', ব্যাটিংয়ের ধরন নিয়ে 'জ্ঞান', রেগে যেতে যেতেও সামলে নিলেন বিরাট, ভাইরাল ভিডিয়ো

কবে সেই পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছিলেন, তা অবশ্য জানাননি ৩৩ বছরের মহাতারকা। যিনি ১৪ বছরের আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে একাধিক উত্থান-পতনের সাক্ষী থেকেছেন। পেশাদারি অ্যাথলিট হওয়ার চাপ সামলেছেন। সেই অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে ওই সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে বিরাট বলেছেন, 'কীভাবে আপনি নিজের সময়টা ভাগ করে নেবেন, তা আপনাকে ঠিক করতে হবে, যাতে ভারসাম্য বজায় থাকে। জীবনের অন্য বিষয়ের মতোও এটার জন্য অনুশীলনের প্রয়োজন আছে। তবে এটায় (সময়) দেওয়া সত্যিই কাজের। নিজের কাজ করার মধ্যে শুধু সেভাবেই মানসিক সুস্থতা এবং উন্মাদনা বজায় রাখতে পারবেন।'

বন্ধ করুন