জেলা নির্বাচন নিয়ে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে না-খুশ মমতা (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
জেলা নির্বাচন নিয়ে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে না-খুশ মমতা (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

Lockdown 2.0: প্রায় ২০ দিন নয়া করোনা আক্রান্ত নেই, জলপাইগুড়ি-কালিম্পঙে কেন্দ্রীয় দল কেন, ক্ষোভ মমতার

তৃণমূলের বক্তব্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভালো কাজ করছেন বলে কেন্দ্রের শাসক দল তা সহ্য করতে পারছে না।

কালিম্পঙে নতুন করে করোনাভাইরাস আক্রান্তের হদিশ মিলেছিল গত ২ এপ্রিল। জলপাইগুড়ির ক্ষেত্রে তা ৪ এপ্রিল। তারপরও কীসের ভিত্তিতে সেখানে কেন্দ্রীয় পাঠানো হল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন : মুম্বইয়ে করোনা আক্রান্ত কমপক্ষে ৫৩জন সাংবাদিক, উদ্বিগ্ন কেন্দ্র

করোনা ও লকডাউন পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে দেশের ১১ জেলায় পাঠানো হয়েছে কেন্দ্রীয় দল। কলকাতায় এসেছে দুটি দল। একটি দল কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা ও পূর্ব মেদিনীপুরের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবে। অপর দলটি উত্তরবঙ্গের তিনটি জেলায় যাবে।

আরও পড়ুন : সংঘাত নয়, কেন্দ্র-রাজ্য সহযোগিতা আবশ্যিক, মমতাকে টুইট ধনখড়ের

আর এখানেই প্রশ্ন তুলেছেন মমতা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী লেখা চিঠিতে মমতা বলেন, '(কেন্দ্রীয় দল সংক্রান্ত) নির্দেশে জানানো হয়েছে, (রাজ্যে) লকডাউন ভঙ্গের কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে এবং কয়েকটি জেলায় পরিস্থিতি বেশ গুরুতর। কিন্তু সেই পর্যবেক্ষণে তথ্যের ফাঁক রয়েছে এবং দাবির পক্ষে কোনও বিশ্বাসযোগ্যতা নেই।'

আরও পড়ুন : এক দিনে ৫৩, কেন্দ্রের খাতায় পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্ত ৪০০ ছুঁইছুঁই

এরপর মমতা জানান, গত ২ এপ্রিলের পর কালিম্পঙে নতুন করে কেউ করোনায় আক্রান্ত হননি। দু'দিন পর জলপাইগুড়িতে শেষবার নয়া করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছিল। এমনকী শনিবার খোদ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছিল, উত্তরবঙ্গের ওই দুই জেলায় গত ১৪ দিনে নতুন করে কেউ করোনায় সংক্রামিত হননি। সোমবার বিকেলের সাংবাদিক বৈঠকেও সেই জেলাদুটির নাম বাদ দেওয়া হয়নি। দার্জিলিঙের ক্ষেত্রেও একই যুক্তি দিয়েছেন মমতা। সেখানে গত ১৬ এপ্রিলের পর নতুন করে করোনা আক্রান্তের খোঁজ মেলেনি। তার একদিন আগে কেন্দ্রের তরফে নন-হটস্পট জেলায় রাখা হয়েছিল দার্জিলিংকে।

আরও পড়ুন : COVID-19 Updates: রাষ্ট্রপতি ভবনে করোনা আক্রান্তের হদিশ, কোয়ারেন্টাইনে ১০০-র বেশি

রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল শিবিবের বক্তব্য, উত্তরবঙ্গের দুটি জেলায় কাজের ঢাক পিটিয়েছে খোদ কেন্দ্র। দার্জিলিংও হটস্পট তালিকায় নেই। তারপরও কোন যুক্তিতে সেই তিনটি জেলায় কেন্দ্রীয় দল পাঠানো হল? অথচ দেশের একাধিক বিজেপি-শাসিত রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি খারাপ হলেও সেখানে পর্যবেক্ষক দল পাঠায়নি কেন্দ্র। শুধুমাত্র মধ্যপ্রদেশে একটি দল পাঠানো হয়েছে। তবে সেখানেও করোনা পরিস্থিতির জন্য বিজেপি কংগ্রেসকেই দুষছে বলে বক্তব্য তৃণমূলের। শাসক দলের এক প্রথম সারির নেতার অভিযোগ, বিরোধী রাজ্যগুলিকেই নিশানা করা হচ্ছে। আর মমতা ভালো করছেন বলে ওদের (কেন্দ্রের শাসক দলের) সহ্য হচ্ছে না।

আরও পড়ুন : COVID-19 Updates: রাজ্যে করোনা টেস্টের কিটে সমস্যা আছে, স্বীকার NICED-এর

মমতা অবশ্য চিঠিতে কেন্দ্রের 'হিংসা' নিয়ে কোনও শব্দ খরচ করেননি। তিনি লিখেছেন, 'এটা থেকেই দেখা যাচ্ছে যে জেলা নির্বাচন ও একতরফা পর্যবেক্ষণ আকাশকুসুম ভাবনা ও অবাঞ্চিত ছাড়া কিছু নয়।' পাশাপাশি তিনি দাবি করেন, রাজ্যে লকডাউনের নিয়মভঙ্গ করা হচ্ছে না। বরং কেন্দ্রের নির্দেশিকা মেনেই লকডাউন পালন করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন